করোনাভাইরাস পরিপ্রেক্ষিতে পবিত্র রমজানে ওমরাহ হজ পালন করার জন্য কেবল তিন ধরনের মানুষকেই সৌদি আরবে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হবে। তারা হলেন- যারা দুই ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন; যাদের প্রথম ডোজ টিকা নেওয়ার পর ১৪ দিন পার হয়ে গেছে এবং যারা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছেন।

সোমবার সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে এমনটা জানানো হয়েছে। খবর এনডিটিভির

মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ওই তিন ধরনের লোককে মক্কায় কাবা ঘরে এবং মদিনায় মসজিদে নববিতে ঢুকে প্রার্থনা করার অনুতি দেওয়া হবে। রমজান শুরুর সঙ্গে সঙ্গে এ নিয়ম কার্যকর হবে। তবে তা কতদিন ধরে চলবে, তা বিবৃতিতে স্পষ্ট করে উল্লেখ করা হয়নি। এমনকি হজের সময় পর্যন্ত তা বাড়ানো হবে কি-না, তাও বলা হয়নি।

সৌদি আরবে এ পর্যন্ত তিন লাখ ৯৩ হাজার মানুষ করোনায় আক্রন্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মারা গেছেন ছয় হাজার ৭০০ জন। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, এ পর্যন্ত দেশটিতে ৫০ লাখ মানুষেকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। দেশটিতে মোট জনসংখ্যা তিন কোটি ৪০ লাখ।

গত মাসে বাদশাহ সালমান হজ বিষয়ক মন্ত্রী মোহাম্মদ বেনতেনকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেন। তার স্থলাভিষিক্ত হন ইসাম বিন সায়িদ। 

গত বছর করোনার কারণে সারাবিশ্ব থেকে অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে কম সংখ্যক মুসলমানকে সৌদি আরবে হজ পালনের অনুমতি দেওয়া হয়।

২০১৯ সালে সারাবিশ্ব থেকে কমপক্ষে ২৫ লাখ মানুষ হজে অংশ নেন। অথচ ২০২০ সালে মাত্র ১০ হাজার মানুষকে হজ পালনের অনুমতি দেওয়া হয়। অনুমতিপ্রাপ্তরা সবাই সৌদি আরবেই অবস্থানরত ছিলেন।

চলতি বছর কী পরিমাণ মানুষকে হজ পালনের অনুমতি দেওয়া হবে, তা এখনও নির্ধারণ করা হয়নি।

মন্তব্য করুন