২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহান থেকে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে মহামারি করোনা ভাইরাস। এক বছরের বেশি সময় ধরে পুরো বিশ্ব তছনছ করে ফেলেছে এই ভাইরাসটি। টিকা প্রয়োগ শুরু হলেও ভাইরাসটির প্রকোপ আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে, শিগগিরই এই ভাইরাস চলে যাবে, এমন লক্ষণও দেখা যাচ্ছে না। মাঝখানে প্রকোপ কিছুটা কমলেও আবার পুরোদমে জেঁকে বসার আশঙ্কা দেখা যাচ্ছে। খবর এনডিটিভির।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম গ্রেব্রেসুস বলেছেন, সারাবিশ্বে ৭৮ কোটি ডোজ কোভিড ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। মহামারিটি কখন শেষ হবে বলা কঠিন। তবে এটাকে নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। আশা করি, কয়েক মাসের মধ্যে আমরা তা পারব।

গত জানুয়ারি ফেব্রুয়ারিতে বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে সংক্রমেণের নিম্ন গতি দেখা গিয়েছিল। কিন্তু গত কয়েক সপ্তাহ ধরে তা আবার বাড়তে শুরু করেছে। একই সঙ্গে বাড়ছে মৃত্যুহারও।

এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থার প্রধান বলেছেন, 'এ বছর জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে সারা বিশ্বে টানা ৬ সপ্তাহ সংক্রমণের হার কমেছিল। এখন সাত সপ্তাহ ধরে ফের সংক্রমণের তেজিভাব দেখা যাচ্ছে। গত চার সপ্তাহ ধরে টানা বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও।' তিনি আরও বলেন, এশিয়া ও মধ্য প্রাচ্যের দেশগুলোতে সংক্রমণের প্রকোপ বাড়ছে।

টেড্রোস বলেন, মহামারি সহজে যাবে না, অনেকদিন ধরে চলবে। তবে এই পরিস্থিতিতে সবাইকে মাস্ক পরতে হবে এবং অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। তবে তিনি সবাইকে এই বলেও আশ্বাস দেন, ‘মহামারিটি অনেক দিন ধরে চললেও আমাদের অনেক আশা রয়েছে। কারণ, প্রথম দু'মাসে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার অনেক কমেছে। এতেই স্পষ্ট যে, এই ভাইরাসকে রোধ করা সম্ভব। আমরা এই পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে পারি।’