ভারতের পশ্চিমবঙ্গে রোববার বিধানসভার ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই রাজ্যজুড়ে বিভিন্ন জায়গায় বিরোধীদের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। বিজেপি বলছে- গত ২৪ ঘণ্টায় তাদের দলের অন্তত ৫ জন নিহত হয়েছেন। পাশাপাশি, দেগঙ্গায় এক আইএসএফ ও খানাকুলে এক তৃণমূল সমর্থক নিহত হয়েছেন। এছাড়াও রাজ্যের বহু জায়গা থেকে বিরোধীদের ঘরবাড়ি ও দোকান ভাঙচুরের খবর আসছে। এ নিয়ে রাজ্যের কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

স্বারাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানান, 'নির্বাচন পরবর্তী হিংসায় টার্গেট করা হচ্ছে বিরোধীদের। এ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কাছে রিপোর্ট তলব করা হয়েছে।' খবর জিনিউজের।

এদিকে সোমবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ অভিযোগ করেন, ভোটের ফল প্রকাশের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রাজ্যে বিজেপির ৫ কর্মীকে খুন করা হয়েছে। হাজার হাজার কর্মী বাড়িছাড়া। তাদের বিভিন্ন জায়গায় রাখা হয়েছে। কয়েক হাজার বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে।

রাজ্যে বিজেপি কর্মীদের ওপরে হামলার ব্যাপারে অভিযোগ করতে সোমবার রাজভবনে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন দিলীপ ঘোষ, শমীক ভট্টাচার্য ও রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিরোধীদের ওপরে হামলায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও। সোমবার এক টুইটে ধনখড় লেখেন, রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় যেভাবে হিংসার ঘটনা ঘটছে তাতে আমি উদ্বিগ্ন। দলীয় কার্যালয়, ঘর, দোকান ভাঙচুর করা হচ্ছে। পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। এনিয়ে রাজ্য সরকারকে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলছি।

মন্তব্য করুন