ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের মধ্যে বুধবার রাত ধরে পাল্টাপাল্টি রকেট ও বিমান হামলা হয়েছে। এতে গাজায় ৩৫ জন ও ইসরায়েলে পাঁচজন নিহত হয়েছেন।

২০১৪ সালের গাজা যুদ্ধের পর ইসরায়েল ও হামাসের একে অপরের বিরুদ্ধে এটিই সবচেয়ে বড় আক্রমণের ঘটনা। খবর রয়টার্সের

বুধবারের প্রথম কয়েক ঘণ্টায় গাজায় বিমান হামলা চালায় ইসরায়েল। অন্যদিকে হামাস তেল আবিব ও বিরশিবা এলাকায় রকেট হামলা চালায়।

ইসরায়েলের হামলায় গাজার একটি ১৩তলা ভবন ধসে পড়ে ও আরেকটি ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

ইসরায়েলে জানিয়েছে, বুধবার প্রথম প্রহরে তাদের জঙ্গি বিমানগুলো গাজার বিভিন্ন লক্ষ্যে হামলা চালিয়ে হামাসের গোয়েন্দা সংস্থার বেশ কয়েকজন নেতাকে হত্যা করেছে। তাদের অন্যন্যা লক্ষ্যগুলোর মধ্যে গাজার রকেট ছোড়ার স্থান ও হামাসের দপ্তর ছিল বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী। 

ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে সংঘর্ষের শুরু চলতি সপ্তাহের শুরুতে। আল আকসায় পবিত্র জুমাতুল বিদায় এই সংঘর্ষের সূত্রপাত।

জাতিসংঘের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক শান্তি দূত তুর ভেনেস্ল্যান্ড টুইটে বলেন, অবিলম্বে এই আগুন বন্ধ কর। আমরা একটি ‍পূর্ণ যুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। উত্তেজনা হ্রাসের জন্য সব পক্ষের নেতাদের দায়িত্ব নিতে হবে।


মন্তব্য করুন