গভীর সংকটে থাকা কঙ্গোতে দুই হামলায় অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন। মধ্য আফ্রিকান দেশটির পূর্বাঞ্চলে এ ঘটনা ঘটে। সোমবার আলজাজিরার খবরে এ তথ্য জানানো হয়। দেশটির একজন সামরিক কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বন্দুকধারীদের দুই হামলায় অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন। উগান্ডা সীমান্তবর্তী দুটি গ্রামে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। একটি সশস্ত্র গোষ্ঠীর সদস্যরা এ হামলা চালিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইতুরি প্রদেশের দুই গ্রাম বোগা ও তিচাবিতে হামলা চালান বন্দুকধারীরা। ওই অঞ্চলে বারোটির মতো সশস্ত্র গোষ্ঠী সক্রিয় আছে। এরমধ্যে একটি অ্যালাইড ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস (এডিএফ) সংশ্লিষ্টরা এ হামলা চালিয়ে থাকতে পারে। তবে স্থানীয় একটি গোষ্ঠীর নেতার স্ত্রী নিহত হওয়ায় হামলার পেছনে জাতিগত শত্রুতাকেই বড় কারণ হিসেবে মনে করা হচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মোটরসাইকেলে করে এসে বন্দুকধারীরা একটি আশ্রয়কেন্দ্রে হামলা চালান। আগের সহিংসতার ভুক্তভোগীরা সেখানে আশ্রয় নিয়েছিলেন।

এদিকে ইতুরি ও পার্শ্ববর্তী উত্তর কিভু প্রদেশে ইতোমধ্যে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।