গ্রিক হরফে করোনাভাইরাসের নতুন ধরনগুলোর নামকরণ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এখন থেকে যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ভারতে শনাক্ত হওয়া করোনার  ধরনগুলোকে গ্রিক হরফে ডাকবে সংস্থাটি।

নতুন নামকরণ পদ্ধতিতে যুক্তরাজ্য ধরনকে ডাকা হবে ‘আলফা’, আফ্রিকান ধরনকে ‘বেটা’ এবং ভারতীয় ধরনকে ‘ডেল্টা’। খবর বিবিসির

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের নতুন ধরন নিয়ে আলোচনা সহজ করার জন্যই নতুন পদ্ধতির প্রবর্তন করা হয়েছে। 

এতোদিন দেশের নামে করোনাভাইরাসের নতুন শনাক্ত ধরনগুলোর নামকরণ হচ্ছিল। যেমন, ভারতে গত অক্টোবরে প্রথম শনাক্ত ধরন বি.১.৬১৭.২ কে ‘ভারতীয় ধরন’ ডাকা হচ্ছিল। এ মাসের শুরুতে ওই নামকরণ নিয়ে সমালোচনাও করেছে ভারত সরকার। বিবিসি’র তথ্য অনুসারে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আনুষ্ঠানিকভাবে এমন কোনো নাম দেয়নি।

সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কোভিড-১৯ কারিগরি প্রধান মারিয়া ভ্যান কেরখোভ টুইটে লিখেছেন, 'কোনো দেশেরই ধরন শনাক্ত ও সে ব্যাপারে জানানোর জন্য কলঙ্কিত হওয়া উচিত নয়।'

কেরখোভ জানিয়েছেন, বিদ্যমান বৈজ্ঞানিক নামের জায়গা নেবে না গ্রিক অক্ষরের নতুন নাম। যদি আনুষ্ঠানিকভাবে ২৪টির বেশি ধরন শনাক্ত হয়ে যায়, তাহলে গ্রিক অক্ষর ফুরিয়ে যাবে। সেক্ষেত্রে নতুন নামকরণ পদ্ধতির ব্যাপারে জানানো হবে।

গ্রিক অক্ষরগুলো ‘ভ্যারিয়েন্টস অফ কনসার্ন’ এবং ‘ভ্যারিয়েন্টস অফ ইন্টারেস্ট’ দুই ক্ষেত্রেই ব্যবহার করা হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওয়েবসাইটে নামগুলোর পূর্ণ তালিকা প্রকাশিত হয়েছে।