স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে ভারতের মুম্বাইয়ে গ্রেপ্তার হয়েছেন খ্যাতনামা এক ইউটিউবার। জিতু জান নামে পরিচিত ওই ইউটিউবারের আসল নাম জিতেন্দ্র।

নিহতের নাম কোমল আগরওয়াল। নিজ বাসায়ই মিলেছে কোমল আগরওয়ালের মরদেহ। প্রাথমিকভাবে পুলিশ দুর্ঘটনায় মৃত্যুর মামলা দায়ের করেছিল।পরে নিহতের মা ও বোনের অভিযোগের ভিত্তিতে তার স্বামীর বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচণার মামলা দায়ের করা হয়। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

দুই মাসের পরিচয়ের মাথায় এ বছরের ৪ মার্চ পালিয়ে বিয়ে করেন আগরওয়াল ও জিতেন্দ্র। নিহতের মা শিলা পাঠাক জানিয়েছেন, বিয়ের পর থেকেই তার মেয়েকে রোজই বাড়ির কাজ নিয়ে মারধোর করত জিতেন্দ্র।

এ ব্যাপারে বোন প্রিয়াকে জানিয়েছিলেন কোমল। এরপর জিতেন্দ্র তাকে বোনের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখতে মানা করেন। সবমিলিয়ে আগরওয়াল তিনবার বোনের কাছে অভিযোগ করেছিলেন। বোন প্রিয়া বলছেন, “জিতেন্দ্র এতোবার কোমলকে শারীরিকভাবে অত্যাচার করেছে, কল্পনা করতে মোটেও কষ্ট হচ্ছে না যে সে তাকে হত্যা করে থাকতে পারে।”

পাঠাক জানিয়েছেন, ২৭ মে পুলিশের কাছ থেকে আগরওয়ালের আত্মহত্যার খবর জানতে পারেন তিনি। পুলিশ তাকে জানায়, গলায় ফাঁসি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে তার মেয়ে।

ভাণ্ডপ পুলিশ স্টেশনের জ্যৈষ্ঠ কর্মকর্তা শাম শিন্ডে জানিয়েছে, ‘আমরা জিতেন্দ্রকে গ্রেপ্তার করেছি এবং মামলা নিয়ে তদন্ত করছি। হত্যা না কি আত্মহত্যা তা জানতে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনের জন্য অপেক্ষা করছি।’