ভারতে শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের ধরন ডেল্টা গোটা বিশ্বে আধিপত্য বিস্তার করছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। শুক্রবার সংস্থাটির প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথন অতি সংক্রামক এ ধরনটি নিয়ে এ কথা বলেন। ভারতকে বিপর্যস্ত করে প্রতিবেশী দেশসহ বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলে দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে ধরনটি; ঠিক তখন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে এ বার্তা এল।

সৌম্য স্বামীনাথন এক ব্রিফিংয়ে বলেন, সংক্রমণ ঘটানোর বাড়তি সক্ষমতার কারণে সারা বিশ্বেই ডেল্টা ধরনটি বেশ তাড়াতাড়ি আধিপত্য বিস্তার করে ফেলছে। খবর রয়টার্সের

অন্য অনেক ভাইরাসের মতো নতুন করোনাভাইরাসও ক্রমাগত রূপ বদল করে চলছে। এরমধ্যে গতবছর ভারতে এর যে পরিবর্তিত একটি রূপ শনাক্ত হয়েছে, তা নাম দেওয়া হয়েছে ডেল্টা। এ ধরন (বি.১.৬১৭.২) অতি সংক্রামক হওয়ায় এর আগেই একে ‘বিশ্বের উদ্বেগ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারতে রেকর্ড রোগী শনাক্ত ও মৃত্যুর জন্য এ ডেল্টা ধরনটিকেই দায়ী করা হচ্ছে। বাংলাদেশেও এ ধরনটির দাপটের মধ্যে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে।

ঢাকায় কভিড-১৯ রোগীদের দুই-তৃতীয়াংশের শরীরেই ডেল্টা ধরন পেয়েছে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআর, বি)। গত মে মাসের শেষ এবং জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে ঢাকায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত ৬০ জনের নমুনার জেনোম সিকোয়েন্স বিশ্লেষণ করে এ চিত্র পাওয়া যায়।

এর আগে ভয় ধরিয়েছিল যুক্তরাজ্যে পাওয়া করোনাভাইরাসের আলফা ধরন (বি.১.১৭)। এ সপ্তাহেই যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের এ ধরন দুটি বিশ্লেষণ করে পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড (পিএইচই) জানিয়েছে, ডেল্টা ধরনটি আলফার চেয়ে গৃহস্থালিতে ৬৪ শতাংশ বেশি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।