উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের বক্তব্যকে ‘আগ্রহোদ্দীপক সংকেত’ হিসেবে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেইক সুলিভান।

তিনি বলেছেন, "এই সপ্তাহে করা কিমের মন্তব্যকে আমরা ‘আগ্রহোদ্দীপক সংকেত’ হিসেবে বিবেচনা করছি। এর মাধ্যমে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের পথে আমরা এগিয়ে যেতে পারি। এমনকি আমরা সরাসরি যোগাযোগ করতে পারি কিনা তার জন্য অপেক্ষা করছি।"

জেইক সুলিভান আরো বলেন, ‘কোরীয় উপদ্বীপে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের বিষয়ে প্রেসিডেন্ট বাইডেন যা বলেছেন তার মূল কথা হলো, পরমাণু চুক্তির বিষয়ে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সমঝোতা করতে যুক্তরাষ্ট্র প্রস্তুত।’ খবর এনডিটিভির। 

এর আগে শুক্রবার কিম জং উন জানান, চলমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় কোনো আপত্তি নেই তার। তবে শুধু আলোচনা নয়, যুক্তরাষ্ট্রকে মোকাবিলা করতেও প্রস্তুত তিনি। ‘আলোচনা এবং মোকাবিলার’ জন্য তার সরকারকে নির্দেশও দেন তিনি। 

এনডিটিভি জানিয়েছে, জো বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর যুক্তরাষ্ট্রকে নিয়ে এটাই কিম জং উনের প্রথম মন্তব্য। কিমের এমন মন্তব্যে নতুন করে দু-দেশের মধ্যে আলোচনার পথ উন্মুক্ত হবে বলে ধারণা বিশ্লেষকদের।