সাড়ে পাঁচ মাসে কুমিল্লা জেলা পুলিশের অভিযানে তিন টন গাঁজা ও ইয়াবাসহ প্রায় ৯ কোটি টাকার মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়েছে। এসব ঘটনায় ১ হাজার ৬১২ জন মাদক চোরাকারবারিকে গ্রেপ্তার করা হয়। সোমবার দুপুরে কুমিল্লা পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ তার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ২০ জুন পর্যন্ত ৫ মাসে জেলার বিভিন্ন এলাকায় পুলিশের অভিযানে ১ লাখ ১৫ হাজার পিস ইয়াবা, ৩ টন গাঁজা, সাড়ে ৮ হাজার বোতল ফেনসিডিলসহ ৮ কোটি ৭৩ লাখ টাকার বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়। এ সময় পুলিশ ১ হাজার ৬১২ মাদক চোরাকারবারিকে গ্রেপ্তার করে।

তিনি আরও জানান, মাদক উদ্ধার অভিযানে প্রতিটি থানায় কর্মকৌশল গ্রহণ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে মাদক চোরাকারবারিদের আইনের আওতায় আনা, চিহ্নিতদের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং আইনে মামলা, মাদকবিরোধী প্রচার, ইউনিয়নভিত্তিক মাদকমুক্ত কার্যক্রম পরিচালনা, বিচার, মাদকের উৎস-রুট, মাদকপ্রবণ এলাকাগুলো চিহ্নিত ও মাদক চোরাকারবারিদের তালিকা প্রস্তুত করে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী আবদুর রহিম, মো. আফজাল হোসেন, সহকারী পুলিশ সুপার জুয়েল রানা, ডিআই-ওয়ান মাঈন উদ্দিন খান, জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ওসি আনওয়ারুল আজিম, কোতয়ালি মডেল থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ।

বিষয় : কুমিল্লা কুমিল্লা জেলা পুলিশ মাদক ব্যবসায়ী

মন্তব্য করুন