ইরান ও দেশটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ৩৬টি ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ওয়েবসাইটগুলোতে ‘বিভ্রান্তি’ বা ভুল তথ্য ছড়ানোর অভিযোগ করেছে ওয়াশিংটন। 

মঙ্গলবার দেখা যায় এসব ওয়েবসাইট বন্ধ হয়ে গেছে। তার জায়গায় দেখা যাচ্ছে একটি নোটিশ, যাতে বলা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্র এগুলো 'বাজেয়াপ্ত' করেছে। এতে এফবিআই ও মার্কিন বাণিজ্য দফতরের সিলও দেখা যায়। খবর বিবিসির 

যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের এক বিবৃতিতে বলা হয়, “নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় আদালতের রায়ে যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ইসলামিক রেডিও অ্যান্ড টেলিভিশন ইউনিয়নের ব্যবহার করা ৩৩টি ওয়েবসাইট এবং কাতাইব হিজবাল্লাহ পরিচালিত ৩টি ওয়েবসাইট বন্ধ করেছে।” 

কাতাইব হিজবাল্লাহকে ইরান সমর্থিত ইরাকি ‘সশস্ত্র গোষ্ঠী’ উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্র এটিকে বিদেশি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে অভিহিত করে। 

বন্ধ করা ওয়েবসাইটের মধ্যে আছে ইরান সরকারের ইংরেজি ভাষার প্রধান স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল- প্রেস টিভি ও এর আরবি সংস্করণ আল আলম টিভি। 

যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি ‘আইআরটিভিইউ’- এর মালিকানায় ৩৩টি ডোমেইন ব্যবহার করা হতো। কিন্তু ডোমেইন ব্যবহারের জন্য ‘ট্রেজারিজ অফিস অব ফরেইন অ্যাসেটস কন্ট্রোল’ থেকে নিবন্ধন করেনি আইআরটিভিইউ।

মঙ্গলবার ওই সাইটগুলোকে নোটিস দিয়ে আইনি ব্যবস্থা হিসেবে সেগুলো বন্ধ করার কথা জানায় যুক্তরাষ্ট্র।

ইরানি সংবাদ সংস্থাগুলো জানিয়েছে, দেশটির বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমের ওয়েবসাইট ও ইরান সমর্থিত গোষ্ঠী ইমেনের ‘হুথি মুভমেন্টের’ মতো সংগঠনগুলোর সাইট বন্ধ করেছে জো বাইডেন সরকার।

পশ্চিমাদের কঠোর সমালোচক ইরানের কট্টরপন্থী নেতা ইব্রাহিম রাইসি ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার কয়েকদিনের মধ্যে এমন পদক্ষেপ নিল যুক্তরাষ্ট্র।