সম্পদের হিসেবে বাকিদের ছাড়িয়ে যাচ্ছেন জেফ বেজোস। শীর্ষ ধনীর খেতাব আগে থেকেই দখলে রেখেছেন তিনি, এবার ব্যক্তিগত সম্পদের হিসেবেও নতুন রেকর্ড গড়লেন। বেজোসের নেট সম্পদ এখন গিয়ে দাঁড়িয়েছে ২১১ বিলিয়ন ডলারে। এর আগে এতো সম্পদের মালিক কেউ হতে পারেননি।

সম্প্রতি পেন্টাগন মাইক্রোসফটের সঙ্গে জেডাই চুক্তি বাতিল করেছে। এর পরপরই শেয়ার দর বেড়েছে অ্যামাজনের। ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার ইনডেক্সের তথ্য অনুসারে, এতে বেজোসের সম্পদ বেড়েছে ৮.৪ বিলিয়ন ডলার। 

জানুয়ারিতে এ মাপের সম্পদের কাছাকাছি যেতে পেরেছিলেন টেসলা প্রধান ইলন মাস্ক। অল্প সময়ের জন্য তার সম্পদের পরিমাণ ২১০ বিলিয়ন ডলারের ঘর ছুঁয়েছিল। বছরের শুরুতে শীর্ষ ধনীর নিয়ে খেতাব নিয়ে কিছুদিন কাড়াকাড়ি করেছেন দু’জন। বেজোসের হাত থেকে কিছুদিনের জন্য খেতাবটি মাস্কের হাতে চলে গিয়েছিল। পরে মার্চে ফের খেতাবটি চলে আসে বেজোসের হাতে। ওই সময়ে অ্যামাজনের শেয়ার দর বেড়েছিল প্রায় ২০ শতাংশ। 

সোমবার অ্যামাজন প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন ৫৭ বছর বয়সী বেজোস। ২৭ বছর প্রতিষ্ঠানটির হাল ধরে রেখেছিলেন তিনি। অ্যামাজনে তার স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেসের প্রধান অ্যান্ডি জেসি।  

পুরোপুরি অ্যামাজন ছাড়ছেন না বেজোস। প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকবেন তিনি।  এখনও গোটা অ্যামাজনের ১১ শতাংশের মালিকানা রয়েছে তার হাতে।