ভারতের মহারাষ্ট্রে টানা বৃষ্টিতে কয়েকটি জায়গায় ভূমিধস হয়েছে। এতে ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার মুম্বাই থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে রায়গড় জেলার কোঙ্কণে এ ঘটনা ঘটে।

ভূমিধসের পর এক জায়গা থেকে ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। অন্য আরেকটি জায়গা থেকে আরও চারটি মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এছাড়া অন্তত আরও ৩০ জন নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের উদ্ধার করতে হেলিকপ্টার নামিয়েছে মহারাষ্ট্র সরকার। খবর আনন্দবাজার ও এনডিটিভির

গত কয়েকদিন ধরেই ভারী বৃষ্টি হচ্ছে মহারাষ্ট্রে। গত ২৪ ঘণ্টা ধরে টানা বৃষ্টি হচ্ছে সেখানে। তাতে মুম্বাইয়ের একাধিক এলাকা জলমগ্ন হয়ে রয়েছে। বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিয়েছে রায়গড়, রত্নগিরি, কোলাপুরসহ একাধিক জেলায়।

গত ৪০ বছরে জুলাই মাসে এ পরিমাণ বৃষ্টি মহারাষ্ট্রে হয়নি বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। উদ্ধার কাজ চালাতে নৌবাহিনী এবং উপকূল বাহিনীর সাহায্যও নিচ্ছে রাজ্য সরকার। এছাড়াও জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীও নামানো হয়েছে। এক টানা বৃষ্টিতে মাটি আলগা হয়ে একাধিক জায়গায় বাড়িও ভেঙে পড়েছে।

বানভাসি মহারাষ্ট্রের উপকূলবর্তী এলাকাগুলোর ৫০ শতাংশ অংশ ডুবে গেছে। অনেক জায়গায় আটকে পড়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাদের পানি পার হয়ে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। এর বিপরীতে বাড়ির ছাদে বা উঁচু জায়গায় থাকতে বলা হয়েছে, যেখান থেকে হেলিকপ্টার তাদের উদ্ধার করে নিয়ে যাবে।

ভারী বৃষ্টির কারণে মুম্বাই থেকে গোয়া জাতীয় সড়ক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে বিপর্যয় মোকাবিলা বিভাগের সঙ্গে বৃহস্পতিবারই জরুরি বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। তার ছেলে তথা রাজ্যের মন্ত্রী আদিত্য নিজে একাধিক জায়গায় ছুটে গেছেন। দাঁড়িয়ে থেকে উদ্ধার কাজে তদারকি করতেও দেখা গেছে তাকে।