কাবুলের দিকে এগিয়ে আসতে থাকা তালেবান এখন উত্তর আফগানিস্তানের অধিকাংশ এবং আঞ্চলিক রাজধানীগুলোর অর্ধেকই দখল করে নিয়েছে।

সংবাদমাধ্যমগুলোর রিপোর্টে বলা হয়, তালেবান যোদ্ধারা এখন কাবুল থেকে মাত্র ৫০ কিলোমিটার (৩০ মাইল) দূরে রয়েছে। কিছু খবরে অবশ্য তালেবান কাবুলের আরো কাছে চলে এসেছে বলে জানানো হচ্ছে। 

তবে একজন স্থানীয় এমপির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, কাবুলের মাত্র ৭ মাইল বা ১১ কিলোমিটার দূরে চার আসিয়াব জেলায় পৌঁছে গেছে তালেবান।

মার্কিন নিরাপত্তা সংস্থাগুলো তাদের সবশেষ মূল্যায়নে বলছে, তালেবান আগামী ৩০ দিনের মধ্যে কাবুলের দিকে এগুনোর চেষ্টা করতে পারে। কাবুল প্রদেশের কাছাকাছি এলাকায় তালেবান অবস্থানগুলোতে মার্কিন বাহিনী সম্প্রতি বিমান হামলাও চালিয়েছে।

সবশেষ খবরে বলা হয়, কান্দাহারের বিমানবন্দরে তালেবানের অবস্থানের ওপর মার্কিন বিমান হামলা হয়েছে।

স্থানীয় সাংবাদিক বিলিল সারওয়ারি নিরাপত্তা সূত্র এবং স্থানীয় হাসপাতালের একজন ডাক্তারকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছেন, এ হামলায় বহু তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছে। এ খবরের ব্যাপারে তালেবানের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

শনিবার সকালে তালেবানের হাতে পাকতিকা প্রদেশের রাজধানী শারানের পতন হয়েছে বলে আঞ্চলিক কাউন্সিলের প্রধান নিশ্চিত করেছেন।

একই দিনে কুনার প্রদেশের রাজধানী আসাদাবাদও তালেবান দখল করেছে বলে স্থানীয় একজনএমপি বিবিসিকে জানিয়েছেন।

এখানে লোকজন তালেবানের পতাকা হাতে রাস্থায় হাঁটছে বলে টুইটারে প্রচারিত ভিডিওতে দেখা গেছে, যার সত্যতা যাচাই করা যায়নি।

সবশেষ খবরে মাজার-ই-শরিফ এলাকায় আবদুর রশিদ দোস্তামের মিলিশিয়া বাহিনীর সাথে তালেবানের প্রবল লড়াই চলছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

উত্তর আফগানিস্তানে মাজারই শরিফই একমাত্র প্রধান শহর যেটি এখনো সরকারি নিয়ন্ত্রণে আছে। সূত্র: বিবিসি বাংলা