হঠাৎ করে দুই স্কুলছাত্রের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাওয়া গেছে প্রায় এক হাজার ৪৯ কোটি আট লাখ ৭২ হাজার ৬৫৩ টাকা বা ৯০৬ কোটি রুপি। তা দেখে হতবাক ওই দুই শিক্ষার্থীসহ অভিভাবকরাও। এত অর্থ কোথা থেকে কী করে অ্যাকাউন্ট দুটিতে এল, সে বিষয়ে কিছুই জানা নেই তাদের।

ভারতের বিহার রাজ্যের কাটিহার জেলায় এ ঘটনা। দ্য প্রিন্ট  এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, পড়াশোনার সহায়তায় সরকারি অনুদানের জন্য উত্তর বিহারে গ্রামীণ ব্যাংকে অন্য শিক্ষার্থীর মতো অ্যাকাউন্ট খুলে ওই দুই ছাত্রও। এরমধ্যে সম্প্রতি স্কুলড্রেসের জন্য সরকারি অনুদানের অর্থ এসেছে কি-না, তা জানতে মা–বাবাসহ গ্রামের একটি ইন্টারনেট সেবাকেন্দ্রে যায় তারা। এরপর অ্যাকাউন্ট চেক করতেই অবাক সবাই!

তাদের দুই অ্যাকাউন্টে দেখা যায় ৯০৬ কোটি রুপি জমা। এরপর ঘটনাটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। এ খবর পেয়ে অন্য অনেকের অ্যাকাউন্টেও খোঁজ নেওয়ো হচ্ছে, এভাবে হঠাৎ করে বিপুল অর্থ জমা পড়েছে কি-না।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই দুই স্কুলছাত্র ষষ্ঠ শ্রেণির। একজনের নাম আশিস। আরেকজন গুরুচরণ বিশ্বাস। এরমধ্যে আশিসের অ্যাকাউন্টে মেলে ছয় কোটি দুই লাখ রুপি। আর গুরুচরণের অ্যাকাউন্টে মেলে ৯০০ কোটি রুপি। সবমিলে ৯০৬ কোটি রুপি। রুপিতে ১ দশমিক ১৬ টাকা ধরলে মোট টাকা দাঁড়ায় এক হাজার ৪৯ কোটি আট লাখ ৭২ হাজার ৬৫৩ প্রায়।

বিষয়টি দেখে অবাক গ্রামীণ ব্যাংকের কর্মকর্তারাও। এত অর্থ কোথা থেকে কীভাবে ওই দুই শিক্ষার্থীর অ্যাকাউন্টে জমা পড়ল, তা খতিয়ে দেখছেন তারা।

কাটিহার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট উদয় মিশরা বলেছেন, ব্যাংকের ব্যবস্থাপক বিষয়টি আমাদের জানিয়েছেন, কম্পিউটার সিস্টেমে ত্রুটির কারণে এমনটি হয়েছে। দুই শিক্ষার্থীর ব্যাংক স্টেটমেন্টে ওই বিপুল অর্থ দেখা যাবে, কিন্তু তারা তা তুলতে পারবে না। কারণ আদতে তা তাদের অ্যাকাউন্টে জমা পড়েনি।