হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রবাসী যাত্রীদের জন্য আরটি-পিসিআর টেস্ট নিয়ে নতুন আশ্বাস দিয়েছে বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। আগামী মঙ্গলবার থেকে করোনার আরটি-পিসিআর টেস্ট চালু হতে পারে বলে বেবিচক জানিয়েছে।

রোববার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, ছয়টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বিমানবন্দরের অভ্যন্তরে ১২টি আরটি-পিসিআর মেশিন স্থাপনের কাজ শেষ করেছে। আরটি-পিসিআর মেশিনের সক্ষমতা যাচাইয়ে প্রাথমিকভাবে ১০০ জন কর্মীর নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষার ফলাফল সফল হয়েছে। তবে তারা কোনো যাত্রী নন। এখন শুধু স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে প্রবাসীদের করোনা পরীক্ষার বিষয়টি লিখিতভাবে বেবিচককে জানালে এর কার্যক্রম শুরু হবে।

বেসামরিক বিমান চলাচল (বেবিচক) কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান সমকালকে জানান, নমুনা পরীক্ষার ফলাফল ভাল এসেছে। এখন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে লিখিতভাবে জানানোর পর এয়ারলাইন্সগুলোকে জানানো হবে। তবে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে বিমানবন্দরে বিদেশগামী যাত্রীদের আরটি-পিসিআর টেস্ট শুরু হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

বেবিচক চেয়ারম্যান বলেন, ‌‘সংযুক্ত আরব আমিরাত আমাদের একটি শর্ত দিয়েছে। বাংলাদেশ থেকে যেতে হলে যাত্রার ৪৮ এবং ৬ ঘণ্টা আগে এয়ারপোর্টের ভেতরে আরটি-পিসিআর টেস্ট করতে হবে। বেসামরিক বিমান, প্রবাসী কল্যাণ, স্বাস্থ্য ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্মিলিতভাবে কাজ করে বিমানবন্দরের ভেতরে একটি ব্যবস্থাপনা তৈরি করা হয়েছে। যেটা রোববার থেকেই টেস্ট রান দিচ্ছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।’

এদিকে বিমানবন্দরের আরটি-পিসিআর টেস্ট আজ হবে, কাল হবে- করে দিন যাচ্ছে। কিন্তু বিমানবন্দরে বিদেশগামীদের করোনা পরীক্ষা চালু হচ্ছে না। শুধুই দিনক্ষণ পেছাচ্ছে। বিমানবন্দরে ল্যাব স্থাপনের কাজ শেষ হলেও এখনও নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না কবে নাগাদ করোনার র‌্যাপিড টেস্ট শুরু হবে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার দুই মন্ত্রী শাহজালাল বিমানবন্দরে পরিদর্শনে এসে বলেছিলেন- শনিবার থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতগামীদের করোনা পরীক্ষা শুরু হবে। পরে জানানো হয়- রোববার থেকে শুরু হবে। কিন্তু এখন পর্যন্ত তা সম্ভব হয়নি বলে বিমানবন্দর সংশ্নিষ্টরা জানান।