জাপান সাগরে হুট করে ঢুকে পড়া মার্কিন নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজকে তাড়িয়ে দিয়েছে রাশিয়ার ডুবোজাহাজ বিধ্বংসী জলযান।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, জাপান সাগরে যৌথ সামরিক মহড়া চালাচ্ছিল রাশিয়া ও চীন। আচমকাই রাশিয়ার জলসীমায় ঢুকে পড়ে মার্কিন যুদ্ধজাহাজ। পরে 

রাশিয়ার ডুবোজাহাজ বিধ্বংসী জলযানের তাড়া মার্কিন যুদ্ধজাহাজটি ফিরে যেতে বাধ্য হয়।

তবে মস্কোর দাবি ‘মিথ্যা’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে ওয়াশিংটন। খবর এনডিটিভির

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, তাদের ডুবোজাহাজ বিধ্বংসী জলযান অ্যাডমিরাল ট্রিবাটস থেকে যুদ্ধজাহাজ চাফিকে রেডিও বার্তায় সতর্ক করা হয়েছিল যে তারা রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজের ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লার মধ্যে চলে এসেছে। কিন্তু চাফি দিক বদল না করে উল্টে জাহাজের ডেক থেকে হেলিকপ্টার উড়ানোর তোড়জোড় শুরু করে।  এরপর রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ তাড়া করে আমেরিকার যুদ্ধজাহাজকে। দুই জাহাজের মাঝে দূরত্ব যখন মাত্র ৬০ মিটার, তখন পথ বদলায় চাফি। গোটা ঘটনাটি ঘটে যায় ৫০ মিনিট সময়ের মধ্যে।

আমেরিকার সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, নির্দিষ্ট লক্ষ্যে আঘাত হানতে সক্ষম যুদ্ধজাহাজ চাফি যখন জাপান সাগরের আন্তর্জাতিক জলসীমায় টহলদারির কাজ করছিল, তখন রাশিয়ার একটি যুদ্ধজাহাজ তার খুব কাছে (৬০ মিটার) চলে আসে। যদিও দুই যুদ্ধজাহাজের মধ্যে কোনো গোলমালের পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। কথোপকথন হয়েছে সম্পূর্ণ পেশাদারি কায়দায়। মস্কোর দাবি মিথ্যা।

গত চার মাসে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ তাড়া করল নেটোভুক্ত কোনো দেশের যুদ্ধজাহাজকে। জুন মাসে একইভাবে একটি ব্রিটিশ যুদ্ধজাহাজকে  ক্রিমিয়া এলাকা থেকে তাড়া করে রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ। সেবারও লন্ডন মস্কোর দাবি উড়িয়ে দিয়েছিল।