অবশেষে প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড থেকে সরে এসেছে আফগানিস্তানে ক্ষমতায় থাকা তালেবান সরকার। যদিও ক্ষমতায় বসার পর থেকেই মধ্যযুগীয় বর্বরতা দেখানো শুরু করেছিল তালেবান। ক্ষমতায় যাওয়ার কিছুদিন পরই দেশটির হেরাত প্রদেশে তিনজনকে প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল তারা। তবে সেখান থেকে সরে এসে এখন বলছে, কোনো নৃশংসতাকে প্রশ্রয় দেবে না আর তারা। 

এছাড়া দেশটিতে নারী শিক্ষা নিয়ে শিগগির পরিকল্পনা ঘোষণা করবে তালেবান, এমনটাই জানিয়েছেন জাতিসংঘের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা। এদিকে আবারও কাবুল বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। খবর এএফপি ও আলজাজিরার।

কিছুদিন আগে দেশটির হেরাত প্রদেশে ক্রেন থেকে দড়ি দিয়ে তিনটি মরদেহ ঝুলিয়ে রেখেছিল তালেবান। সেখানকার একটি বাড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগে তাদের প্রকাশ্যে ওই মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। ওই ঘটনার পর বহির্বিশ্বের কড়া সমালোচনার মুখে পড়ে তালেবান। তৈরি হয় নতুন চাপ। ফলে প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ডের মতো ভয়াবহ বিধান থেকে পিছু হটছে তারা।

তালেবান সরকারের পক্ষ থেকে স্পষ্টভাবে জানানো হয়েছে, শীর্ষ আদালতের নির্দেশ ছাড়া কোনোভাবেই স্থানীয়ভাবে প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ডের বিধান কার্যকর করা যাবে না। হেরাতের ঘটনায় মূল অভিযোগের তীর ওঠে ডেপুটি গভর্নর মৌলানা আহমেদ মুহাজিরের দিকে।


বিষয় : প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড পিছু হটা

মন্তব্য করুন