জরুরি পদক্ষেপ না নিলে এই শীতেই লাখ লাখ আফগান খাদ্য সংকটে পড়বে বলে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি) সকর্ত করেছে।

সংস্থাটি বলছে, বর্তমানে আফগানিস্তানের অর্ধেকেরও বেশি জনগোষ্ঠী অর্থাৎ ২ কোটি ৮ লাখ মানুষ তীব্র খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার সম্মুখীন । এছাড়াও পাঁচ বছরের কম বয়সী ৩২ লাখ শিশু তীব্র অপুষ্টিতে ভুগছে। খবর বিবিসির

ডব্লিউএফপির নির্বাহী পরিচালক ডেভিড বিসলে বলেছেন, আফগানিস্তান এখন বিশ্বের সবচেয়ে মানবিক সংকটের দেশগুলির অন্যতম। আগামীতে এখানে চরম বিপর্যয় দেখা দিতে পারে।

আগস্টে যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের পর গোটা দেশ নিয়ন্ত্রণে নেয় তালেবান।  এরপর থেকেই  বৈদেশিক সাহায্যের উপর নির্ভরশীল দেশটির ভঙ্গুর অর্থনীতিকে আরও দুর্বল করে দেয়।

সশস্ত্র গোষ্ঠী তালেবান আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার পরই দেশটির জন্য অধিকাংশ সহায়তা স্থগিত করে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়।  এমনকী বিশ্বব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলও দেশটিতে অর্থপ্রদান বন্ধ করেছে।

বিশ্বব্যাংকের মতে, আফগানিস্তানের জিডিপির প্রায় ৪০ শতাংশ আন্তর্জাতিক সহায়তার মাধ্যমে আসে।আন্তর্জাতিক সহায়তা বন্ধ হওয়ায় দেশটি ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে।

অনেক আফগান এখন খাবার কেনার জন্য তাদের সম্পদ বিক্রি করছে। কোথাও কোথাও খরা দেখা দেওয়ায় খাদ্য সংকট আরও বেড়েছে।

সব মিলিয়ে তালেবানের নতুন সরকার বড় ধরনের অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মুখে পড়তে যাচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।