অবশেষে সাধারণ পরিবারের প্রেমিককেই বিয়ে করলেন জাপানের রাজকুমারী মাকো। এই বিয়ের ফলে তিনি তার রাজকীয় মর্যাদা হারিয়েছেন। জাপানের আইন অনুযায়ী রাজপরিবারের কোনো নারী সদস্য যদি সাধারণ কোনো নাগরিককে বিয়ে করেন তবে তিনি রাজকীয় মর্যাদা হারান। যদিও রাজপরিবারের পুরুষ সদস্যের ক্ষেত্রে এই নিয়ম কার্যকর নয়। 

কলেজ জীবনের সহপাঠী কুমোরোকে বিয়ে করে শুধু রাজকীয় মর্যাদাই হারাননি মাকো। তিনি নিজে থেকেই প্রথা অনুযায়ী রাজকীয় বিয়ের অনুষ্ঠান এবং পরিবার ছেড়ে যাওয়ার কারণে রাজপরিবার থেকে যে অর্থ পেতেন তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। খবর বিবিসি অনলাইনের। 

মাকোই রাজপরিবারের প্রথম নারী সদস্য যিনি বিয়ের অনুষ্ঠান ও অর্থ প্রত্যাখ্যান করেছেন। তার এই সম্পর্ক দেশটিতে প্রচুর বিতর্কের মুখোমুখি হয়ে আসছিল।   

২০১৭ সালে তিনি কুমোরোর সঙ্গে সম্পর্কে আবদ্ধ হন। পরের বছরই তাদের বিয়ের পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু কুমোরোর মায়ের অর্থনৈতিক সমস্যার খবরে বিয়ে পিছিয়ে যায়। বলা হয়েছিল ওই নারী তার প্রাক্তন সঙ্গীর কাছ থেকে ঋণ নিয়ে তা পরিশোধ করেননি।  তবে রাজপ্রাসাদ বিষয়টি অস্বীকার করেছে। যদিও যুবরাজ ফুমিহিতো বলেছেন, বিয়ে করার আগে অর্থনৈতিক বিষয়টা মোকাবিলা করা গুরুত্বপূর্ণ ছিল।   

বিয়ের পর এই দম্পতি যুক্তরাষ্ট্রে আবাস গড়বেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সেখানে কুমোরো আইন পেশায় নিযুক্ত হবেন।