স্কটল্যান্ডের গ্লাসগো শহরে চলমান জাতিসংঘের কপ২৬ জলবায়ু সম্মেলন ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন সুইডিশ পরিবেশকর্মী গ্রেটা থুনবার্গ। শুক্রবার স্কুল বাদ দিয়ে হাজারো স্কুল শিক্ষার্থী ও তরুণদের বিক্ষোভ মিছিলে যোগ দেন গ্রেটা। মিছিল শেষে জর্জ স্কয়ারে সমবেতদের উদ্দেশে তিনি এ মন্তব্য করেন। 

তিনি বলেন, 'জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব যদি মোকাবেলা করতে হয়, কার্বন গ্যাসের নির্গমন এখনই বড় মাত্রায় কমানো দরকার, যা আগে কখনও হয়নি।'    

থুনবার্গের অনুসারী তরুণ পরিবেশবাদীদের সংগঠন ফ্রাইডেস ফর ফিউচারে স্কটল্যান্ড শাখা এ কর্মসূচির আয়োজন করে। গ্লাসগোতে চলমান জলবায়ু সম্মেলনের মধ্যে পরিবেশবাদীদের আয়োজিত সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ সমাবেশ ছিল এটা। 

গ্লাসগোর বিক্ষোভ সমাবেশে থুনবার্গ বলেন, 'কপ২৬ যে ব্যর্থ হয়েছে, সেটা গোপন কিছু নয়। যে প্রক্রিয়ায় আজ আমরা এই দুর্বিপাকের মধ্যে পড়ে গেছি, সেই একই প্রক্রিয়ায় যে আমরা সেখান থেকে উদ্ধার পাব না, এটা তো জানা কথা।' 

থুনবার্গ বলেন, ক্ষমতাসীনরা কল্পনার রঙিন বুদবুদের মধ্যে নিজেদের লুকিয়ে রাখতে পারেন; তারা ভাবতে পারেন যে কোনো একটি গ্রহে হঠাৎ করেই একদিন অলৌকিক কিছু ঘটে যাবে, প্রযুক্তির এমন শক্তি মানুষ পেয়ে যাবে যে আজকের সব সঙ্কট নিমেষেই কেটে যাবে। কিন্তু তারা যখন সেই স্বপ্নে বিভোর, এই পৃথিবী তখন আক্ষরিক অর্থেই পুড়ছে। সবচেয়ে ঝুঁকিতে আছে যারা, এরই মধ্যে তাদের বইতে হচ্ছে জলবায়ু সঙ্কটের ক্ষত।  

কার্বন নিঃসরণ কমানোর দাবিতে ক্লাস বর্জন করে ২০১৮ সালে সুইডিশ পার্লামেন্টের সামনে অবস্থান নিয়ে বিশ্বের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন গ্রেটা থুনবার্গ, তখন তার বয়স মাত্র ১৫। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই তার মাধ্যমে তরুণদের মধ্যে জলবায়ু রক্ষার আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছে।