পাকিস্তানে আফগানিস্তানের কূটনৈতিক কার্যক্রম ফের শুরু হয়েছে। ইসলামাবাদ থেকে আফগান দূতাবাস সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নিজেদের পেজে এক বিবৃতিতে একথা জানায়। 

তালেবান সরকারের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদও পাকিস্তানে আফগান শরণার্থীদের মধ্যে বিরাজমান সমস্যা ও চ্যালেঞ্জগুলো সমাধান করতে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানান। 

জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, দূতাবাস ও কনস্যুলেটের কর্মচারীরা আবার তাদের কাজ শুরু করেছেন। খবর তোলো নিউজের।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পাকিস্তানে বসবাসকারী সকল আফগান শরণার্থী, ব্যবসায়ী এবং পাকিস্তানি নাগরিক ও পাকিস্তানে অবস্থানরত বিদেশি নাগরিক, যারা পাকিস্তান হয়ে আফগানিস্তানে যেতে ইচ্ছুক, তাদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে, ইসলামাবাদে আফগান দূতাবাস এবং পেশোয়ার, করাচি ও কোয়েটায় সমস্ত জেনারেল কনস্যুলেট এই বিষয়ে সক্রিয় এবং কার্যকর ভূমিকা পালনের উদ্যোগ নিয়েছে। 

এদিকে ইসলামাবাদে আফগানিস্তান দূতাবাসের কার্যক্রম ফের শুরু করায় দেশটিতে বিভিন্ন ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। আফগানিস্তানের রাহ-ই-নেজাত কাউন্সিলের প্রধান সাইয়েদ আকবর আগা বলেন, স্বীকৃতির বিষয়ে কোনো তথ্য নেই। তবে জনগণের সমস্যা সমাধানের জন্য কিছু দৈনন্দিন কার্যক্রম থাকলে ভালো হবে।

এর আগে কিছু সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে এরকম ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছিল যে, ইসলামাবাদে দূতাবাস পরিচালনার জন্য তালেবান সরকার তাদের দূত পাঠিয়েছে। যদিও জাবিউল্লাহ মুজাহিদ তখন এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, তালেবান সরকারের পক্ষ থেকে কোনো সরকারি দূত পাঠানো হয়নি।