চীনে জন্মহার ১৯৭৮ সালের পর থেকে সর্বনিম্ন স্তরে নেমে এসেছে। দেশটির জাতীয় পরিসংখ্যান ব্যুরোর প্রকাশিত ডেটা অনুযায়ী, ২০২০ সালে চীনে প্রতি ১০০০ জনে ৮.৮ জন শিশু জন্ম নিয়েছে। চীনে এর আগে কয়েক দশক এই হার ছিল ১০-এর ওপরে। 

সপ্তাহান্তে প্রকাশিত পরিসংখ্যানের ইয়ারবুকে বলা হয়েছে, ২০২০ সালে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার নতুন সর্বনিম্নে (১.৪৫ শতাংশ) ছিল। খবর গার্ডিয়ান অনলাইনের।

চীনে সন্তান জন্মদানে কয়েক দশকের হস্তক্ষেপবাদী নীতি এবং উচ্চ জীবনযাত্রার ব্যয়সহ সাম্প্রতিক চাপের পর সম্ভাব্য জনসংখ্যা হ্রাস রোধ করার জন্য সরকার চাপের মধ্যে রয়েছে।

জন্মহারের এভাবে নাটকীয় হ্রাসের কারণ জানানো হয়নি। তবে জনসংখ্যাবিদরা সন্তান জন্মদানের বয়সী নারীদের তুলনামূলক কম সংখ্যা এবং একটি পরিবার গড়ে তোলার ক্ষেত্রে ক্রমবর্ধমান ব্যয়ের দিকে নির্দেশ করেছেন।

ইয়ারবুকের রিপোর্টে এর কারণ হিসেবে, শিক্ষাগত, সাংস্কৃতিক ও বিনোদনমূলক খরচসহ গ্রামীণ ও শহরাঞ্চলের চীনাদের জন্য স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা পরিষেবার জন্য মাথাপিছু ব্যয় হ্রাস এবং পরিবারের আয় বৃদ্ধির কথা জানিয়েছে। আবাসন খরচ বাড়ার বিষয়টিও যুক্ত করা হয়েছে।

চীন মূলত এক সন্তান নীতির দ্বারা চালিত হয়ে আসছিল যেটি ১৯৮০ সালে বাস্তবায়িত হয় এবং কিছু ছাড়সহ ২০১৫ সাল পর্যন্ত তা বলবৎ থাকে।