চীনা টেনিস তারকা পেং শুয়াই ইস্যুতে দেশটিতে অনুষ্ঠিতব্য সবগুলো টুর্নামেন্ট স্থগিত ঘোষণা করেছে দ্য ওমেনস টেনিস অ্যাসোসিয়েশন (ডব্লিউটিএ) । তিন সপ্তাহ আগে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ তোলার পর থেকে শুয়াইকে (৩৫) আর জনসমুক্ষে দেখা যায়নি। 

ডব্লিউটিএ প্রধান স্টিভ সিমন বলেছেন, শুয়াই ‘স্বাধীন, নিরাপদ এবং তাকে ভয় দেখানো হচ্ছে না’-এই ব্যাপারে তার গুরুতর সন্দেহ ছিল। শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষ হিসেবে তিনি অ্যাথলেটদের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে বলতে পারেন না। খবর বিবিসি অনলাইনের। 

ডব্লিউটিএ বারবার শুয়াইয়ের অভিযোগের পূর্ণাঙ্গ তদন্ত দাবি করে আসছে। প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের ঘনিষ্ট মিত্র চীনের সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার পর থেকে শুয়াইকে নিয়ে ব্যাপক উদ্বেগ তৈরি হয়েছিল। তবে তিনি গত নভেম্বরে ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট থমাস ব্যাচের সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলার সময় বলেছিলেন, তিনি ‘নিরাপদ এবং ভালো’ আছেন। যদিও ডব্লিউটিএ বলেছে, ওই ভিডিওটি শুয়াই নিরাপদে আছেন সেই ব্যাপারে ‘অপর্যাপ্ত প্রমাণ’। 

দীর্ঘ এক বিবৃতিতে সিমন বলেন, ২০২২ সালে প্রতিযোগিতাগুলো চীনে অনুষ্ঠিত হলে খেলোয়াড় এবং স্টাফরা যে ঝুঁকির মুখোমুখি হতো সে ব্যাপারে তিনি ‘খুব উদ্বিগ্ন’ ছিলেন।

তিনি বলেন, চীনের নেতৃত্ব গুরুতর এই ইস্যুটিকে বিশ্বাসযোগ্য কোনো পন্থায় সমাধান করছে না। নারীর কণ্ঠস্বর যদি প্রভাবশালী ব্যক্তিরা চেপে ধরে এবং যৌন নিগ্রহের মতো অভিযোগগুলোকে আড়ালে পাঠিয়ে দেয় তাহলে ডব্লিউটিএ যে ভিত্তির (নারীর সমঅধিকার) ওপর প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল তা বড় ধাক্কার সম্মুখীন হবে। ডব্লিউটিএ এবং এর খেলোয়াড়দের সঙ্গে সেটা আমি হতে দিতে পারবো না এবং পারি না।