বিদ্যমান করোনা টিকাগুলো নতুন ধরন ওমিক্রনে আক্রান্ত ব্যক্তিদের গুরুতর অসুস্থ হওয়া থেকে রক্ষা করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) এক কর্মকর্তা। এমন এক সময় ওই কর্মকর্তার এই মন্তব্য আসলো যখন দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া ওমিক্রনের প্রথম ল্যাব পরীক্ষায় দেখা গেছে, ফাইজারের টিকা নতুন ধরনে পুরোপুরি কার্যকর নয়, আংশিক কার্যকর। 

গবেষকরা বলছেন, তারা বিদ্যমান টিকায় নতুন ধরন ওমিক্রন প্রতিরোধে ‘খুব বড় তফাৎ’ দেখতে পেয়েছেন। তবে ডব্লিউএইচওর ডা. মাইক রায়ান বলেছেন, ওমিক্রনে এমন কোনো নজির পাওয়া যায়নি যা অন্যান্য ধরন থেকে টিকাকে বেশি ফাঁকি দিতে পারে। খবর বিবিসি অনলাইনের।  

ডব্লিউএইচওর জরুরি বিভাগের পরিচালক রায়ান বলেন, আমাদের খুব কার্যকর টিকা আছে যেগুলো এখন পর্যন্ত শনাক্ত হওয়া সবগুলো ধরনে আক্রান্ত ব্যক্তিকে গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে নেওয়া থেকে রক্ষার প্রমাণ রেখেছে। তাই এটা প্রত্যাশা না করার কোনো কারণ নেই যে এগুলো ওমিক্রনের বিরুদ্ধে কার্যকর হবে না। 

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে তথ্য থেকে দেখা গেছে ওমিক্রন ধরন মানুষকে ডেল্টা বা অন্যান্য ধরনের চেয়ে বেশি অসুস্থ করে তুলে না। যদি কিছু হয়ও তবে তা হলো, ওমিক্রনে রোগীরা কম গুরুতর অসুস্থ হয় তাকে নির্দেশ করে। 

এদিকে দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন এক গবেষণায় দেখা গেছে, ফাইজার/বায়োএনটেকের করোনা টিকা কোভিডের আসল ধরন থেকে ওমিক্রনে ৪০ বার পর্যন্ত কম কার্যকর হতে পারে। তবে গবেষণাটি এখনো কোনো পিয়ার রিভিউ জার্নালে প্রকাশিত হয়নি। 

গবেষণাটির নেতৃত্ব দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার হেল্থ রিসার্চ ইনস্টিটিউটের ভাইরোলজিস্ট প্রফেসর অ্যালেক্স সাইগাল। তিনি বলেছেন, ফাইজারের টিকার অ্যান্টিবডিকে ফাঁকি দেওয়ায় ওমিক্রনের সক্ষমতা ‘অসম্পূর্ণ’। ১২ জনের রক্তের পরীক্ষার ভিত্তিতে পাওয়া ফলাফল ওমিক্রনে আমি যা ‘প্রত্যাশা করেছিলাম তার চেয়ে ভালো’। 

তিনি বলেন, আগে সংক্রমিত হয়ে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে এবং টিকা নেওয়া আছে এমন ব্যক্তিরা ওমিক্রনে গুরুতর অসুস্থ হওয়া থেকে রক্ষা পেতে পারেন। আর এটি নির্দেশ করে, বুস্টার ডোজ সম্ভবত খুবই উপকারী হবে। 

বিজ্ঞানীদের বিশ্বাস, আগে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং পরে টিকার দুই ডোজ বা বুস্টার ডোজ মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়ায় এবং সম্ভবত গুরুতর অসুস্থতা থেকে মানুষকে রক্ষা করবে। 

সামনের দিনগুলোতে ফাইজারের টিকা ওমিক্রনের বিরুদ্ধে কতটুকু কার্যকর সেই ব্যাপারে আরও তথ্য-উপাত্ত প্রকাশ করা হবে বলে আশা। তবে মর্ডানা, জনসন অ্যান্ড জনসনসহ অন্যান্য টিকা নতুন এই ধরনের বিরুদ্ধে কতটুকু কার্যকর সেই ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ কোনো তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি।