ভারতে আগামী ১০ জানুয়ারি থেকে করোনাভাইরাসের টিকার বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হবে। শনিবার রাতে জাতির উদ্দেশে ভাষণে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ ঘোষণা দেন।

প্রথমে বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে স্বাস্থ্যকর্মী, সম্মুখসারির যোদ্ধা ও ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তিদের। এছাড়া নতুন বছরের শুরুতেই ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের জন্য টিকাদানেরও ঘোষণা দেন মোদি। এ কর্মসূচি শুরু হবে ৩ জানুয়ারি। খবর এনডিটিভির

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বড়দিন উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে মোদি বলেন, করোনা এখনও পুরোপুরি চলে যায়নি। নতুন রূপ ওমিক্রনে আক্রান্ত ব্যক্তিদের খোঁজ মিলছে ভারতেও। এ পরিস্থিতিতে আমাদের করোনাবিধি যথাযথভাবে মেনে চলতে হবে। দেশের স্বাস্থ্য পরিকাঠামো পুরোপুরি তৈরি। দেশে ১৮ লাখ আইসোলেশন বেড ও লক্ষাধিক আইসিইউ বেড প্রস্তুত রয়েছে।

মোদি বলেন, করোনার টিকার সতর্কতামূলক ডোজ (বুস্টার ডোজ) ১০ জানুয়ারি থেকে স্বাস্থ্যকর্মী, সম্মুখসারির কর্মীদের দেওয়া হবে। এছাড়া একাধিক রোগে আক্রান্ত ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যায় ভোগা ব্যক্তিদেরও চিকিৎসকের পরামর্শে টিকার অতিরিক্ত এ ডোজ দেওয়া হবে।

১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন ভারতের চিকিৎসকেরা। শিশু চিকিৎসক অপূর্ব ঘোষ বলেন, ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়া জরুরি ছিল। এটা খুবই ভালো সিদ্ধান্ত।