গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা চালানোর কথা জানিয়েছে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী।

বাহিনীটি জানায়, গাজা থেকে রকেট ছোড়ার একদিন পর হামাসের অবস্থানে এ হামলা চালানো হয়। শনিবার রাতে রকেট তৈরি কারখানা এবং হামাসের সামরিক অবস্থান লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়েছে। খবর আলজাজিরার।

রোববার ইসরায়েলের সেনাবাহিনী টুইটারে এক বিবৃতিতে জানায়, ২০২২ সালকে বরণ করে নিতে বিশ্বজুড়ে যখন আতশবাজি আকাশ আলোকিত করছিল তখন গাজা থেকে ইসরায়েলের দিকে ভিন্ন ধরনের আগুন উড়ে আসে। এর প্রতিক্রিয়ায় আমরা গাজায় একটি রকেট তৈরির কারখানা ও সামরিক অবস্থানে হামলা চালিয়েছি।

শনিবার গাজা থেকে রকেটগুলো কেন ছোড়া হয়েছে তা পরিষ্কার নয়। তবে গাজাভিত্তিক সংগঠনগুলো নিয়মিত সাগরে ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায়।

হামাসের মুখপাত্র হাজেম কাশেম বলেন, আমাদের জনগণ ও ভূমি রক্ষায় প্রতিরোধ অব্যাহত থাকবে।

ইসরায়েলের সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে জানায়, হামলার ঘটনায় হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি। বাজানো হয়নি সাইরেন ও মোতায়েন করা হয়নি আইরন ডোমও।

সেপ্টেম্বরের একটি ঘটনা ছাড়া গত বছরের মে মাসে হওয়া যুদ্ধবিরতির পর থেকে আন্তঃসীমান্ত রকেট হামলার ঘটনা ঘটেনি। যুদ্ধবিরতি হওয়ার আগে ১১ দিনের গাজা-ইসরায়েল যুদ্ধে ২৬০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছিলেন। যুদ্ধে নিহত হয়েছিলেন ১৩ ইসরায়েলিও।