ছিলেন ম্যাকডোনাল্ডের কর্মী এবং একজন সফটওয়্যার ডেভেলপার। এরই মধ্যে স্থান করে নিয়েছেন বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের তালিকায়। তিনি বিনান্স এক্সচেঞ্জের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) চ্যাংপেং ঝাও।

ক্রিপ্টোকারেন্সির দুনিয়ায় অন্যতম অগ্রপথিক মনে করা হয় চীনা-কানাডিয় ঝাওকে৷ এই মুহূর্তে তার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ভারতের সবচেয়ে বড় ধনী ব্যক্তি মুকেশ আম্বানির চেয়েও বেশি। বুর্জ খলিফার কাছে বানিয়েছেন বাড়ি। খবর সিএনএনের।

ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে চর্চাকারীদের কাছে চ্যাংপেং ঝাও 'সিজেড' নামে পরিচিত। সংযুক্ত আরব আমিরাতেও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছেন তিনি। আবুধাবিতে ধনী ব্যক্তিদের যারা বিনান্স এক্সচেঞ্জ দেশে আনতে চান তাদের পরামর্শ দেন ঝাও। 

 ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার্স ইনডেক্স অনুসারে, ঝাওয়ের মোট সম্পদ ৯ হাজার ৬০০ কোটি ডলার। ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ, গুগলের প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ, সের্গেই ব্রিনসহ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রযুক্তিবিদদের কাছাকাছি অবস্থান করছেন তিনি।

বিশ্লেষকদের মতে, ঝাওয়ের শীর্ষ ধনীর কাতারে উঠে আসার মানে হলো, ডিজিটাল মুদ্রার জগৎ খুব দ্রুত বড় হচ্ছে এবং এ বিষয়ে মানুষের আগ্রহ বাড়ছে।