দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরের একটি জলমগ্ন অগ্নেয়গিরির উদ্গিরণের পর সৃষ্ট সুনামিতে টোঙ্গার ক্ষতিগ্রস্ত সাগরতলের ক্যাবল ঠিক করতে অন্তত চার সপ্তাহ সময় লাগবে।

নিউজিল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানায়। খবর বিবিসির। 

বুধবার নিউজিল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, টোঙ্গা থেকে বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম সাগরতলের ক্যাবল আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাবল কোম্পানি সাবকম বলছে, টোঙ্গার ক্যাবল যোগাযোগ মেরামত করতে অন্তত চার সপ্তাহ সময় লাগবে।

শনিবার অগ্ন্যুৎপাতের কারণে ক্যাবলটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে দ্বীপ দেশটি। 

সুনামিতে দেশটির বহু ঘর ধ্বংস হয়ে গেছে এবং নিহত হয়েছে অন্তত তিনজন। এর মধ্যে একজন ব্রিটিশ নাগরিক।

সর্বশেষ হালনাগাদ করা তথ্যে দেশটির সরকার বলেছিল, দেশের ইন্টারনেট বন্ধ আছে। তবে কিছু স্থানীয় ফোন সার্ভিস চালু আছে এবং পুরো যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনঃস্থাপনে কাজ চলছে।

নিউজিল্যান্ডের কর্তৃপক্ষ জানায়, টোঙ্গার প্রধান বিমানবন্দরের রানওয়ে আজকের মধ্যেই পরিষ্কার হতে পারে বলে আশা করা যাচ্ছে। 

স্থানীয় সময় গত শনিবার বিকেলে টোঙ্গার উপকূলে হুনগা টোঙ্গা হুনগা হাপাই আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়। 

এর জেরে দেশটির দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগর উপকূলে ভূকম্পন অনুভূত হয়। 

এর পরপরই দেশটির আবহাওয়া দপ্তর দেশজুড়ে সুনামি সতর্কতা জারি করে। 

আর সতর্কতা জারির পর টোঙ্গার বাসিন্দারা উঁচু স্থানগুলোতে আশ্রয় নিতে ছুটে যান। এরপর দেশটিতে সুনামি আঘাত হানে।