চলতি বছরের ১৬ অক্টোবর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। সেই লক্ষেই আজ বৈশ্বিক এ টুর্নামেন্টের সূচি প্রকাশ করেছে আইসিসি। আগামী ১৬ অক্টোবর প্রথম পর্বে শ্রীলঙ্কা ও নামিবিয়ার ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের।

আইসিসির ধরা-বাঁধা সময়ে র‍্যাংকিংয়ে নিরাপদ অবস্থানে থাকায় এবার আর প্রথম পর্বে খেলতে হচ্ছে না বাংলাদেশকে। আগামী ২২ অক্টোবর মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া। এই ম্যাচ দিয়েই শুরু হবে সুপার টুয়েলভ রাউন্ড।

এবার গ্রুপ 'বি'-তে থাকা বাংলাদেশ প্রতিপক্ষ হিসেবে পাবে ভারত, পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে। বাংলাদেশের বাকি দুই প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকছে বাছাইপর্বে গ্রুপ 'বি'-এর জয়ী দল ও গ্রুপ 'এ' এর রানার্স-আপ দল।

বিশ্বকাপের গ্রুপ-১ গড়া হয়েছে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া, রানার্স আপ নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড ও আফগানিস্তানকে নিয়ে। এর আগে 'প্রাথমিক পর্বের' লড়াইয়ে খেলতে হবে শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। 'এ' গ্রুপে শ্রীলঙ্কার সঙ্গী হয়েছে নামিবিয়া। 'বি' গ্রুপে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও স্কটল্যান্ড। এই চার দল গেল বছরের আসরে সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করার কারণে জায়গা করে নিয়েছে 'প্রাথমিক পর্বে'। বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব শেষে গ্রুপ দুটিতে আরও দুটো করে দল নির্ধারিত হবে। দুই গ্রুপ থেকে শীর্ষ দুই দল আসবে সুপার টুয়েলভে।

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ অভিযান শুরু ২৪ অক্টোবর, হোবার্টে প্রতিপক্ষ থাকবে প্রথম রাউন্ডে 'এ' গ্রুপের রানার্স আপ দল। সুপার টুয়েলভ-এর পাঁচটি ম্যাচ বাংলাদেশ খেলবে চার ভেন্যুতে।

২৭ অক্টোবর সিডনিতে বাংলাদেশ খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে, ব্রিজবেনের গ্যাবায় ৩০ অক্টোবর লড়াই প্রথম রাউন্ডের 'বি' গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দলের সঙ্গে। এই পর্বের শেষ দুটি ম্যাচ বাংলাদেশ খেলবে অ্যাডিলেইডে। ২ নভেম্বর প্রতিপক্ষ ভারত, ৬ নভেম্বর পাকিস্তান।

৬ নভেম্বরই শেষ হবে সুপার টুয়েলভ পর্বের সব লড়াই। ৯ নভেম্বর প্রথম সেমি-ফাইনাল সিডনিতে, পরেরদিন দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল অ্যাডিলেইডে। ১৩ নভেম্বর ঐতিহাসিক মেলবোর্ন ক্রিকেট মাঠে হবে ফাইনাল। সব মিলিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ৭টি ভেন্যুতে হবে বিশ্বকাপের ম্যাচগুলি।