মালি ও গিনির পর এবার পশ্চিম আফ্রিকার আরেকটি দেশে সেনা অভ্যুত্থানে সরকার পতনের ঘটনা ঘটলো। সোমবার বুরকিনা ফাসোর প্রেসিডেন্ট রোচ মার্ক ক্রিশ্চিয়ান কাবোরেকে ক্ষমতাচ্যুত করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। আগের দিন রোববার দিনভর গোলাগুলির পরের দিন সোমবার সন্ধ্যায় সরকার পতনের এ ঘোষণা দেয় দেশটির সামরিক বাহিনী।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সেনাবাহিনী এক ঘোষণায় জানিয়েছে, কোনো সহিংসতা ছাড়াই সেনাবাহিনী ক্ষমতা গ্রহণ করেছে। যাদের আটক করা হয়েছে তাদের নিরাপদ একটি স্থানে রাখা হয়েছে। সেনাবাহিনীর শীর্ষস্থানীয় এক কর্মকর্তা স্বাক্ষরিত এক বিবৃতি টেলিভিশনে পড়ে শোনান আরেকজন সেনা কর্মকর্তা। 

এ নিয়ে গত ১৮ মাসের মধ্যে পশ্চিম আফ্রিকার তৃতীয় দেশ বুরকিনা ফাসো’তে সেনা অভ্যুত্থান ঘটলো। এর আগে প্রতিবেশী মালি ও গিনিতে সামরিক বাহিনী ক্ষমতা দখল করে। তার কিছু আগে মধ্য আফ্রিকার দেশ শাদের প্রেসিডেন্ট ইদ্রিস দেবি দেশটির বিদ্রোহীদের সঙ্গে লড়াইয়ে প্রাণ হারান। এরপর সেখানেও ক্ষমতা হাতে নেয় সেনাবাহিনী। 

সম্প্রতি দেশটিতে বেসামরিক ও সেনা সদস্যদের ওপর জঙ্গিদের হামলার ঘটনা প্রায়ই ঘটছিল। এতে প্রাণহানিতে দেশজুড়ে হতাশা তৈরি হয়। এই জঙ্গিদের সঙ্গে ইসলামিক স্টেট (আইএস) ও আল কায়েদারও যোগাযোগ রয়েছে বলে জানা যায়।

রোববার দেশটির বেশ কয়েকটি সামরিক ক্যাম্প থেকে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এরপর সামরিক অভ্যুত্থানের খবর চারদিকে ছড়িয়ে পড়লেও সরকার তা অস্বীকার করে। বিদ্রোহী সেনারা জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াই করছিল। জঙ্গিদের হামলার ঘটনার প্রতিবাদে সড়কে নেমে বিদ্রোহীদের প্রতি সমর্থন জানায় অনেকেই। তারা প্রেসিডেন্ট কাবোরের রাজনৈতিক দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে হামলা চালায়।