আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে বল টেম্পারিং করে তুমুল আলোচনার জন্ম দিয়েছে নেদারল্যান্ডস। সে ঘটনায় ম্যাচে নেদারল্যান্ডসকে শাস্তি দিয়েছিল ম্যাচ আম্পায়ার। এবার বল টেম্পারিং করা ক্রিকেটার ভিভিয়ান কিংমাকে নিষিদ্ধ করেছে ইন্টারন্যাশন্যাল ক্রিকেট কাউন্সিল আইসিসি।

মঙ্গলবার তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছিল আফগানিস্তান এবং নেদারল্যান্ডস। সেই ম্যাচে বল বিকৃতি করে তৃতীয় মাত্রার অপরাধ করে অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন ভিভিয়ান কিংমা।

বল টেম্বারিং বা বিকৃতির ঘটনাটি চোখে পড়ে আফগানিস্তান ইনিংসের ৩১তম ওভারে। বল বিকৃতি চোখে পড়লে আম্পাররা ৫ রান পেনাল্টি দিয়েছেন। নিয়ম অনুযায়ী যেটি আফগানিস্তানের স্কোরবোর্ডে যুক্ত হয়েছে। 

আইসিসির কোড অব কন্ডাক্ট অনুযায়ী, কোনো ক্রিকেটার বল বিকৃতির চেষ্টা করলে ৪১.৩ নম্বর ধারা ভঙ্গ হবে। ধারা ভঙ্গ করে কিংমা পেয়েছেন ৪ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা। সেই সঙ্গে কিংমার নামের পাশে জুড়ে দেওয়া হয়েছে ৫টি ডিমেরিট পয়েন্ট।

বল থেকে বাড়তি সুবিধা পাওয়ার জন্য নখ দিয়ে বল ঘষছিলেন কিংমা। আম্পায়াররা বিষয়টি টের পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই বল পরিবর্তন করেন। ম্যাচ শেষে অপরাধ মেনে নেওয়ায় কোনো আনুষ্ঠানিক শুনানির প্রয়োজন পড়েনি।

২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বল টেম্পারিং করেছিল অস্ট্রেলিয়া। সে ঘটনায় স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার এবং ক্যামেরুন ব্যানক্রাফটকে বিভিন্ন মেয়াদের নিষিদ্ধ করেছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এরপর থেকেই ক্রিকেট বিশ্বে বল টেম্পারিংয়ের ঘটনা উধাও হয়েই গেছিলো। তবে আবারও সেই ঘটনা ফিরিয়ে আনলো নেদারল্যান্ডস।