রাশিয়ার সঙ্গে বৈঠকে ইউক্রেন যুদ্ধবিরতি ও দেশটির ভূখণ্ড থেকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে আলোচনা করবে বলে জানা গেছে। ইতোমধ্যে রাশিয়ার প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকের জন্য বেলারুশ-ইউক্রেন সীমান্তে পৌঁছেছে কিয়েভের প্রতিনিধি দল।

ইউক্রেনের কর্তৃপক্ষের বরাতে এ তথ্য জানায় ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

খবরে বলা হয়, কিয়েভের প্রতিনিধি দল যুদ্ধবিরতি ও ইউক্রেন থেকে রুশ সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে আলোচনার পরিকল্পনা করেছে।

এর আগে বেলারুশ জানিয়েছে, কিয়েভে মস্কোর আগ্রাসনের পঞ্চম দিনে ইউক্রেন ও রাশিয়ার প্রতিনিধিদের মধ্যে শান্তি আলোচনার জন্য নির্ধারিত স্থান প্রস্তুত করা হয়েছে।

বেলারুশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, বেলারুশে ইউক্রেন ও রাশিয়ার প্রতিনিধিদের মধ্যে আলোচনার ভেন্যু প্রস্তুত করা হয়েছে। এখন আশা করা হচ্ছে— প্রতিনিধিরা দ্রুত যোগ দেবেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সুন্দর করে সাজানো একটি বৈঠক কক্ষের ছবি শেয়ার করেছে বেলারুশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সেখানে বেলারুশ, রাশিয়া ও ইউক্রেনের পতাকা দেখা যাচ্ছে।

বেলারুশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র আনাতোলি গ্লাজ বলেন, আলোচনার স্থানে প্রতিনিধিরা এলেই বৈঠক শুরু হবে।

এর আগে এ বৈঠক থেকে খুব বেশি কিছু আশা করছেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

জেলেনস্কি বলেন, যথারীতি, আমি এ বৈঠক থেকে কোনো সমাধান বের হয়ে আসবে তা বিশ্বাস করি না। তবে তাদের চেষ্টা করতে দিন।

গত বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের দোনবাস অঞ্চলে ‘সামরিক অভিযানের’ ঘোষণা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এর পর থেকে ভয়াবহ সংঘাত চলছে।

ইউক্রেনের দাবি, হামলা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত চারদিনে পাঁচ হাজারের বেশি রুশ সেনা নিহত হয়েছে।