নেত্রকোনার কলমাকান্দায় পুকুরের পানিতে ডুবে জামিলা আক্তার নামে একবছর বয়সী এক কন্যা শিশু নিহত হয়েছে। আজ শুক্রবার বিকেলে কলমাকান্দা উপজেলার রংছাতি ইউনিয়নের চৈতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।  

নিহত জামিলা ওই এলাকার জাহাঙ্গীর আলম ও মদিনা আক্তার দম্পতির প্রথম সন্তান। জাহাঙ্গীর আলম একজন গার্মেন্টস শ্রমিক। 

পুলিশ ও মৃতের দাদী জায়েদা খাতুনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বাড়ির সামনে আম গাছের ডালে দোলনায় দোল খাচ্ছিল জামিলার ছোট ফুফু মরিয়ম। পুকুর পাড়ে আম গাছের নিচে জামিলাকে বসিয়ে রেখেছিল। এ সময় পাশে ছোট ছোট বাচ্চারা খেলা করছিল। সবার অজান্তে জামিলা পুকুরে পড়ে যায়। কিছুক্ষণ পরে জামিলাকে দেখতে  না পেয়ে মরিয়মের ডাক-চিৎকারে দাদী জায়েদাসহ বাড়ির লোকজন ছুটে আসেন। অনেক খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে মৃতের দাদী  জামিলাকে পুকুরে ভাসতে দেখেন। 

স্থানীয়দের সহযোগিতায় জামিলাকে উদ্ধার করে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে মরদেহ কলমাকান্দা থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানিয়েছে এস আই আশিকুর রহমান। 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক শামীম আরা বলেন, শিশুটি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আনার আগেই মারা গেছে। অতিরিক্ত পানি পেটে প্রবেশ করায় সে মারা গেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ খান বলেন, আইনি প্রক্রিয়া শেষে শিশুটির লাশ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে।