বাণিজ্যিক কেন্দ্র সাংহাইতে করোনাভাইরাসে তিন জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছে চীন। মার্চে লকডাউন শুরুর পর থেকে এ প্রথম সেখানে মৃত্যুর ঘটনা ঘটল। 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ তথ্য জানায়। 

শহরের স্বাস্থ্য কমিশন এক বিবৃতিতে জানায়, যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের বয়স ৮৯ থেকে ৯১ বছরের মধ্যে এবং তারা টিকা নেননি।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘বাঁচানোর সব চেষ্টা সত্ত্বেও’ রোববার হাসপাতালে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের তিনজনেরই স্বাস্থ্যের অবস্থা ভালো ছিল না। 

শহরটি এখন ফের গণপরীক্ষা কার্যক্রম শুরু করছে। এর অর্থ হলো— অধিকাংশ বাসিন্দাদের জন্য কড়া লকডাউন বহাল থাকবে। এর আগ পর্যন্ত চীন দাবি করে আসছিল— এ শহরে করোনায় কারও মৃত্যু হয়নি। যদিও দেশটির এ দাবির বিরুদ্ধে বরাবরই প্রশ্ন ওঠেছে।

এর আগে ২০২০ সালের মার্চে সর্বশেষ দেশটিতে করোনায় মৃত্যু হয়েছিল।

এদিকে তিন সপ্তাহ আগে ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ায় শহরটিতে কড়া লকডাউন আরোপ করা হয়। যার ফলে বাসিন্দাদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। ফলে লাখ লাখ মানুষ ঘরবন্দি হয়ে পড়েছেন। যারই পজিটিভ হিসেবে ধরা পড়ছে তাকেই পাঠানো হচ্ছে কোয়ারেন্টিন সেন্টারে।

২০১৯ সালের ডিসেম্বর চীনের উহান থেকে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। দেশটিতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন এক লাখ ৮৫ হাজার মানুষ। মৃত্যু হয়েছে চার হাজার ৬৪১ জনের।