বাংলাদেশের পতাকা ১৯৭১ সালের ১৮ এপ্রিল দুপুর ১২টা ৪১ মিনিটে বিদেশের যে মিশনে প্রথম উত্তোলিত হয়েছিল সেই কলকাতা মিশনেই পতাকা উত্তোলিত হলো সোমবার। ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল কুষ্টিয়ার বৈদ্যনাথ তলায় (বর্তমান মুজিবনগর) বাংলাদেশের প্রথম সরকার শপথ নেওয়ার পরদিনই কলকাতায় পাকিস্তানের মিশন বাংলাদেশ মিশন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

আজ সকালে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা নিয়ে কর্মকর্তাবৃন্দ কলকাতাস্থ উপ-হাইকমিশনের চারদিকে প্রদক্ষিণ করে। পতাকার চার কোনায় চার উইং প্রধান প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) মো. শামসুল আরিফ, প্রথম সচিব (প্রেস) রঞ্জন সেন, কাউন্সিলর (কন্স্যুলার) মো. বশির উদ্দিন ও কাউন্সিলর (শিক্ষা ও ক্রীড়া) রিয়াজুল ইসলাম এবং মাঝে পতাকা ধরে ছিলেন উপ-হাইকমিশনার আন্দালিব ইলিয়াস। 

তাদের সঙ্গে অংশ নেন কাউন্সিলর (রাজনৈতিক) সিকদার মোহাম্মদ আশরাফুর রহমান, কাউন্সিলর (রাজনৈতিক) এবং দূতালয় প্রধান শামীমা ইয়াসমীন স্মৃতি, প্রথম সচিব (রাজনৈতিক-২) সানজিদা জেসমিন, দ্বিতীয় সচিব (কন্স্যুলার) রাসেল জমাদার, তৃতীয় সচিব (রাজনৈতিক) শেখ মারেফাত তারিকুল ইসলাম। এরপর জাতীয় সঙ্গীতের সঙ্গে উপ-হইকমিশনার পতাকা উত্তোলন করেন।

উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালের ১৮ এপ্রিল কলকাতায় পাকিস্তানের উপ-দূতাবাসে কর্মরত মিশন প্রধান এম হোসেন আলী ৬৫ জন বাঙালি কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বাংলাদেশের প্রতি আনুগত্য ঘোষণা করে পাকিস্তানের পতাকা নামিয়ে বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেছিলেন এবং পরবর্তীতে তারা মুজিবনগর সরকারের নির্দেশনায় মিশন পরিচালনা করেছিলেন। 

কলকাতা মিশনের পতাকা উত্তোলনকে বহির্বিশ্বের আরও কয়েকটি মিশন অনুসরণ করে। এ ঘটনা নিয়ে ১৯৭১ সালের ১৯ এপ্রিল কলকাতার সকল পত্রিকায় সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয় যা সারাবিশ্বে সাড়া ফেলে।