পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বেড়িবাঁধ নির্মাণকে কেন্দ্র করে স্থানীয়দের হামলায় ৩ চীনা নাগরিকসহ ৯ জন আহত হয়েছেন। আহতরা চায়না প্রজেক্টে কর্মরত শ্রমিক বলে জানা গেছে। হামলার ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার বাদুরা গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

জানা গেছে, নির্মাণ প্রকল্পের জন্য জমি অধিগ্রহণে জটিলতা ও এলাকার চাহিদাকে প্রাধান্য না দিয়ে বেড়িবাধ নির্মাণ করায় এলাকাবাসী ক্ষুব্দ হয়ে কাজে বাধা দেয়। আহতদের উদ্ধার করে ভান্ডারিয়া হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

আহতরা চীনা নাগরিকরা হলেন ম্যানেজার মাজিমাও (৩১), সুপারভাইজার চ্যাং ডিউ (২৭), সুপারভাইজার লেই বো (৩৬)। এছাড়া আহত অন্য শ্রমিকরা হলেন জিল্লুর রহমা (২৬), ইলিয়াস (৩৪), নিজাম শিকদার (৪০), মানিক (৩২), বাহাদুর উকিল (৬০), জাকারিয়া খান (৩০)।

এদের মধ্যে মারাত্মক আহত জাকারিয়া খানকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে এবং বাহাদুর উকিলকে ভাণ্ডারিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. কামাল হোসেন মুফতি জানান, আহত অবস্থায় ভাণ্ডারিয়া হাসপাতালে ৩ জন চীনা নাগরিক ও ৬ জন বাঙালি জরুরি বিভাগে চিকিৎসা নিয়েছেন। আহতদের মধ্যে ২ জন চীনা নাগরিকের হাতে ও পায়ে এবং ১ জনের মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। বাহাদুর উকিল নামে একজন বাঙালি হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি নুরুল ইসলাম বাদল জানান, বেড়িবাঁধ নির্মাণের জন্য রোববার সকালে এক্সকাভেটর মেশিন দিয়ে মাটি কাটতে গেলে এলাকাবাসী তাতে বাধা দেয়। এ সময় চায়না প্রজেক্টের শ্রমিকদের সাথে স্থানীয় লোকজনের সংঘর্ষ হয়। এতে ৩ জন চীনা নাগরিক ও ৬ জন বাঙালি শ্রমিক আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।