রোমানিয়া এবং স্লোভেনিয়া সফরের এক পর্যায়ে আচমকা ইউক্রেন সফর করলেন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন। সফরে তিনি সামরিক জোট ন্যাটোর মিত্রদের যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। 

সফরে জিল বাইডেন ইউক্রেনের সীমান্তবর্তী শহর উজহোরোদের একটি স্কুলে দেশটির ফার্স্ট লেডি ওলেনা জেলেনস্কির সঙ্গে  সাক্ষাৎ করেন। স্কুলটি বর্তমানে যুদ্ধে বাস্তুচ্যুত ইউক্রেনীয়দের আশ্রয়শিবির হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। রোববার ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি অনলাইনে দেওয়া লাইভ আপডেটে এই তথ্য জানানো হয়। 

এ সময় জিল বাইডেন বলেন, তিনি দেখাতে চান যুক্তরাষ্ট্রের জনগণ ইউক্রেনের জনগণের পাশে রয়েছে। এখন যুদ্ধের তৃতীয় মাস চলছে এবং এটি ‘নিষ্ঠুর’ এবং এটা থামাতে হবে। 

এদিকে যুদ্ধ পরিস্থিতির মধ্যে জিল বাইডেনের এই সফরকে ইউক্রেনের ফার্স্ট লেডি ওলেনা জেলেনস্কি ‘সাহসী কাজ’ বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, আমরা বুঝতে পারছি কি জন্য যুদ্ধ চলাকালীন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি এখানে এসেছেন। যখন প্রতিদিন সামরিক কর্মকাণ্ড চলছে। যেখানে প্রতিদিন এয়ার সাইরেন বাজছে, এমনকি আজকেও বেজেছে। 

তিনি আরও বলেন, আন্তর্জাতিক মা দিবসে এই সফর দারুণ প্রতীকী। এই রকম গুরুত্বপূর্ণ একটি দিনে আপনার ভালোবাসা এবং সমর্থন আমরা অনুভব করছি। 

এরপর এই দুই ফার্স্ট লেডি স্কুলে আশ্রয় নেওয়া শিশুদের সঙ্গে বসে খেলাধুলা করেন। শিশুদের সঙ্গে বসে তারা টিস্যু পেপার দিয়ে ভাল্লুক বানান যা ইউক্রেনের এই প্রদেশের প্রতীক। 

প্রসঙ্গত, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে রাশিয়ার সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে ওলেনা জেলেনস্কিকে আর প্রকাশ্যে দেখা যায়নি।