কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার ফিলিস্তিনি-আমেরিকান সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেকে অধিকৃত পশ্চিম তীরে হত্যার ঘটনায় সর্বসম্মতভাবে নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ।

কূটনীতিকদের বরাতে এ তথ্য জানায় আলজাজিরা।

ইসরায়েল সংশ্লিষ্ট বিষয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সর্বসম্মতভাবে নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দেওয়া বিরল ঘটনা।

শিরিনের হত্যার বিষয়ে ‘একটি দ্রুত, পুঙ্খানুপুঙ্খ, স্বচ্ছ এবং নিরপেক্ষ তদন্ত’ করার আহ্বান জানানো হয়েছে বিবৃতিতে।

জাতিসংঘের হিউম্যান রাইটস অফিসও এ হত্যার পুঙ্খানুপুঙ্খ এবং স্বাধীন তদন্ত দাবি করেছে। তাদের মতে, এটি যুদ্ধাপরাধ হতে পারে।

এএফপিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কূটনীতিক জানান, শুক্রবার নিরাপত্তা পরিষদে আলোচনা বিশেষভাবে দুঃসাধ্য ছিল।

অধিকৃত পশ্চিম তীরের জেনিন শরণার্থী ক্যাম্পে অভিযান চালানোর সময় সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে নিহত হন আল জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু আকলে। সংবাদ সংগ্রহ করতে যাওয়ার সময় তার মাথায় হেলমেট ও গায়ে ভেস্ট পরা ছিল যার মাধ্যমে বোঝা যাচ্ছিল তিনি সাংবাদিক।

এ ঘটনা এমন সময় ঘটলো যখন প্রায় দুই মাস ধরে চলা সহিংসতার পর ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে চরম উত্তেজনা চলছে। ছুরিকাঘাত, গুলি, গাড়িচাপা বা কুঠার হামলায় ১৭ জন ইসরায়েলি এবং দুইজন ইউক্রেনিয়ান নিহত হয়েছে। একই সময় হামলার সময় গুলিতে অথবা ইসরায়েলি অভিযানে অনেক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।