উত্তর কোরিয়ায় দ্রুত ছড়াতে থাকা করোনা সংক্রমণকে দেশের জন্য ভয়ানক বিপর্যয় হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন দেশটির নেতা কিম জং উন। গতকাল শনিবার এক জরুরি বৈঠকে সংক্রমণ মোকাবিলায় সর্বাত্মক ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি। এদিকে দেশটিতে জ্বরে আক্রান্ত হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে নতুন করে ২১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। খবর বিবিসির।

বৈঠকে কিম উন বলেন, আমাদের দেশ প্রতিষ্ঠার পর থেকে সংক্রামক মহামারির বিস্তারে অশান্তি শুরু হয়েছে। এই সংকটের জন্য তিনি চিকিৎসা এবং আমলাতন্ত্রের অক্ষমতাকে দায়ী করেন। এ ছাড়া তিনি চীনের মতো প্রতিবেশী দেশগুলোর কাছ থেকে শিক্ষা নেওয়ার আহ্বান জানান।
উত্তর কোরিয়ার জনগোষ্ঠী আড়াই কোটি। ভ্যাকসিন কর্মসূচির অপ্রতুলতা এবং দুর্বল স্বাস্থ্যব্যবস্থার কারণে পুরো জনগোষ্ঠী ঝুঁকিতে রয়েছে বলে ধরে নেওয়া হয়।

শনিবার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, গত কয়েক সপ্তাহে প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে। দেশটির টেস্ট করার সক্ষমতা কম হওয়ায় বেশিরভাগ করোনা আক্রান্তই নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। আগের দু'দিনে যে পরিমাণ মানুষের করোনা আক্রান্তের ইঙ্গিত উত্তর কোরিয়া দিয়েছে, শনিবার তার চেয়ে অনেক বেশি আক্রান্তের হিসাব দিয়েছে। এ থেকে দেশটিতে উত্তর কোরিয়ায় সম্ভাব্য সংক্রমণের ভয়াবহতা নিয়ে একটি ধারণা পাওয়া যাচ্ছে।