শ্রীলঙ্কায় সরকারবিরোধী বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষের মধ্যে নিহত হন ক্ষমতাসীন দলের সংসদ সদস্য অমরাকীর্থি আথুকোরালা। গত সোমবার তার লাশ উদ্ধারের পর পুলিশ বলেছিল, বিক্ষোভকারীদের ধাওয়া খেয়ে নিজের পিস্তল দিয়ে গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করেছেন তিনি।

তবে অমরাকীর্থি আথুকোরালার ময়নাতদন্তে বেরিয়ে এসেছে, ব্যাপক পিটুনির শিকার হওয়ায় শরীরের কয়েক জায়গায় গুরুতর জখম হয়েছিল তার। সেসব জায়গা থেকে রক্তক্ষরণের কারণে মৃত্যু হয় তার। খবর ডেইলি মিররের

ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের উদ্ধৃতি দিয়ে শ্রীলঙ্কার গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, একাধিক আঘাত, হাড় ভেঙে যাওয়া এবং অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরণের কারণে এমপির মৃত্যু হয়েছে, তবে তার দেহে কোনো গুলির আঘাত ছিল না।

অবশ্য ওই প্রতিবেদনে এটা উঠেছে যে এমপির সাথে থাকা তার পুলিশ দেহরক্ষী বন্দুকের গুলিতে মারা গেছেন। কারা গুলি চালিয়েছিল তা তদন্ত করে বের করতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।