রাশিয়া বলেছে, আমরা যদি ইউক্রেনের কৃষ্ণ সাগরস্থ বন্দরগুলো খুলে দিই তাহলে মস্কোর ওপর দেওয়া নিষেধাজ্ঞাগুলোও পুনরায় বিবেচনা করতে হবে। 

এর আগে গত সপ্তাহে কৃষি পণ্য রপ্তানি পুনরায় শুরুর করার জন্য রাশিয়াকে ওই সমুদ্র বন্দরগুলো খুলে দেওয়ার আহ্বান জানায় জাতিসংঘ। জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির প্রধান ড্যাভিড বিসলি সতর্ক করেন, ওই বন্দরগুলো বন্ধ থাকলে চলমান বিশ্ব খাদ্য সংকট আরও তীব্র হবে। বার্তা সংস্থা ইন্টারফেক্সের বরাতে এই খবর প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি অনলাইন।

পুতিনকে উদ্দেশ করে বিসলি বলেছিলেন, প্রকৃতই যদি আপনার কোনো হৃদয় থাকে তবে দয়া করে বন্দরগুলো খুলে দিন।   

বিসলির ওই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতেই এই কথা বলেছে রাশিয়া। ইউক্রেন বিশ্বের শস্য উৎপাদনকারী দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম। দেশটি তাদের  উৎপাদিন এসব শস্য নিজেদের সমুদ্র বন্দরগুলো ব্যবহার করে রপ্তানি করে থাকে। 

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া দেশটিতে সামরিক অভিযান চালালে পরিস্থিতি বদলাতে থাকে। যুদ্ধের এক পর্যায়ে রাশিয়ান সেনারা কৃষ্ণ সাগরস্থ দেশটির বন্দরগুলো বন্ধ করে দেয়।  বর্তমানে দেশটি শস্য রপ্তানিতে ট্রেন এবং দানিউব নদীর ছোট বন্দর ব্যবহার করছে।  

বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির আওতায় ১২৫ মিলিয়ন মানুষ সুবিধা পায় এবং তাদের মোট শস্যের ৫০ ভাগ ইউক্রেন থেকে ক্রয় করে।