আজ যে মাধুরী দীক্ষিতকে চিনেন সবাই। তার এই মাধুরী হয়ে উঠার পেছনে রয়েছে এক সংগ্রামের ইতিহাস। তিনি এসে খেলে মাধুরী হয়ে উঠেননি। বলিউডে নবাগত অবস্থায় একাধিক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছিলেন মাধুরী দীক্ষিত। 

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সেই নিয়ে মুখ খুলেছেন বলিউডের এই অভিনেত্রী। মাধুরী বলেন, যথেষ্ট রোগা হওয়ার কারণে নানা সময় সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি। এমনকি যখন তিনি একজন নবাগত ছিলেন তখন তাকে ওজন বাড়ানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল।

বর্তমানে ইন্ডাস্ট্রির মধ্যে অনেক পরিবর্তন এসেছে। ১৯৮৪ সালে ‘অবোধ’ ছবি দিয়ে বলিউডে ডেবিউ করেন মাধুরী। অভিনেত্রী এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমার সময়ে… তাঁদের মধ্যে হয়েছিল নবাগত হিসেবে আমি খুব রোগা। প্রায়শই শুনতে হত….. এই নায়িকা খুব রোগা, ওকে একটু মোটা হতে বলো। আমার মনে হয় এখন সেই বিষয়টা অনেকটা পালটে গিয়েছে।’ 

সাক্ষাত্কারে মাধুরী আরও শেয়ার করেছেন বলিউডের বর্তমান প্রথম সারির অভিনেত্রীরা তার কাছ থেকে কী শিখতে পারে, যদি তিনি কখনও একটি আত্মজীবনী লেখেন। তা জানাবেন তিনি। অভিনেত্রী বলেন, ‘পরীক্ষা চালিয়ে যান। আপনি সফল বা ব্যর্থ হন কিনা তা ভাববেন না। ব্যর্থতাগুলি শেখার জায়গা। তবে ব্যর্থতাগুলিও দেখায় যে কখনও কখনও আপনি আপনার সময়ের থেকে এগিয়ে থাকেন। কিন্তু এটা নিয়ে চিন্তা করবেন না। সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং ভূমিকার জন্য তোমার মন যেটা চাইবে সেটাই করো।’

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে মাধুরীর শুরুর দিনগুলিতে তাকে ‘রোগা’ বলা হত। এর আগেও ২০২০ সালে পিঙ্কভিলাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে 'স্কিনি' বলে ডাকার কথা স্মরণ করেছিলেন তিনি। 

মাধুরী নেটফ্লিক্সের ‘দ্য ফেম গেম’-এর মাধ্যমে ওটিটিতে ডেবিউ করেন। চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে মুক্তি পায় ওই ছবি। তিনি এই সিরিজে বলিউডের প্রবীণ অভিনেত্রী অনামিকা আনন্দের চরিত্রে অভিনয় করেছেন।