সেভারোদোনেৎস্ক শহরের মেয়র অলেক্সান্ডার স্ট্রিউক জানিয়েছেন, এ শহরে রাশিয়ার হামলায় অন্তত এক হাজার ৫০০ মানুষ নিহত হয়েছেন।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার খবরে এ তথ্য জানানো হয়।

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের এ শহরটি বর্তমানে লড়াইয়ের কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে।

মেয়র বলেন, শহরে এখনও ১২ থেকে ১৩ হাজার মানুষ আটকে রয়েছেন। তবে বৃহস্পতিবার মাত্র ১২ জনকে সেখান থেকে সরিয়ে নেওয়া গেছে।

স্ট্রিউক বলেন, শহরের ৬০ শতাংশ আবাসিক ভবন ধ্বংস হয়ে গেছে।

সেভারোদোনেৎস্ক ইউক্রেনের দখলে থাকা দোনবাসের লুহানস্ক অঞ্চলের সর্বশেষ শহর। রাশিয়া চাইছে, এ শহরকে ইউক্রেন নিয়ন্ত্রিত অঞ্চল থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলতে।

শহরটির মেয়র বলেন, লিসিচানস্ক ও বাখমুতের সঙ্গে প্রধান সড়ক এখনও চালু রয়েছে। তবে এ পথে চলাচল অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ।

সাম্প্রতিক সময়ে দোনবাস অঞ্চলের কর্তৃপক্ষ জানায়, সেভেরদোনেৎস্ক ও লিসিচানস্ক দখলে নেওয়ার জন্য রুশ সেনারা ৪০টির বেশি অবস্থানে হামলা চালিয়েছে।

এ ছাড়া ওই অঞ্চলে রাশিয়ার হামলা তীব্র পর্যায়ে পৌঁছেছে বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনের উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী হান্না মিলার।

২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা শুরুর কিছুদিন পর নিজেদের লক্ষ্য পরিবর্তন করে মস্কো। ইউক্রেনের পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চলকে গুরুত্ব দেওয়ার কথা জানানোর পর থেকে দোনবাস অঞ্চলে হামলা জোরদার করে রুশ সেনারা। এর পর গুরুত্বপূর্ণ বন্দরনগরী মারিওপোলের দখলে নেয় রাশিয়া। এখন তারা দোনবাস অঞ্চলে ব্যাপক হামলা চালাচ্ছে।