যুক্তরাষ্ট্রে আবারও বন্দুক সহিংসতার ঘটনা ঘটলো। এবার দেশটির পেনসিলভানিয়ার ফিলাডেলফিয়ায় একটি ব্যস্ততম সড়কে জড়ো হওয়া মানুষের ওপর বন্দুকধারীরা এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়েছে। এতে অন্তত তিন জন নিহত এবং ১১ জন আহত হয়েছেন। 

শনিবার রাতে ফিলাডেলফিয়ায় সাউথ স্ট্রিট নামে এক সড়কে এই ঘটনা ঘটে। এই সড়কে অনেকগুলো পানশালা ও রেস্তোরাঁ থাকায় এটি বিনোদনের করিডোর হিসেবে পরিচিত। 

ফিলাডেলফিয়া পুলিশ ইন্সপেক্টর ডি এফ পেস জানান, মধ্যরাতের কিছু আগে পুলিশ সদস্যরা গুলির শব্দ শুনে। ওই সময় পুলিশ সদস্যরা সড়কটিতেই টহল দিচ্ছিল। বেশ কয়েকজন বন্দুকধারী জড়ো হওয়া মানুষকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ছিল। খবর সিএনএনের। 

তিনি আরও বলেন, এক পুলিশ কতর্মকর্তা এক বন্দুকধারীর ১০ থেকে ১৫ গজের মধ্যে ছিলেন। পরে তিনি ওই বন্দুকধারীকে লক্ষ্য করে গুলি করেন। কিন্তু আমরা নিশ্চিত নই ওই বন্দুকধারী গুলিবিদ্ধ হয়েছে কিনা। তবে বন্দুক ফেলে সে পালিয়েছে। 

পেস বলেন, প্রতি সপ্তাহের মতো শত শত মানুষ সাউথ স্ট্রিটে জড়ো হয়েছিলেন এবং নিজেদের মতো করে সময় উপভোগ করছিলেন। এর এক পর্যায়ে গুলির ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুই জন পুরুষ এবং একজন নারী। ঘটনাস্থল থেকে দুটি পিস্তল ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এই ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি। 

সাম্প্রতিক সময়ে যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক হামলার ঘটনা বেড়েই চলেছে। নিউইয়র্কের বাফালোয় এক হামলায় কয়দিন আগে ১০ জন কৃষ্ণাঙ্গ নিহত হন। এরপর টেক্সাসের উভালডে প্রাইমারি স্কুলে বন্দুক হামলায় নিহত হয় ১৯ শিশু ও দুই শিক্ষক। পরে ওকলাহোমায় হামলায় দুই চিকিৎসক, একজন রিসিপসনিস্ট ও এক রোগী নিহত হন। এরপর গত বৃহস্পতিবার উইসকনসিনে আরও একটি বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটে। সেখানে হামলায় শেষকৃত্যে অংশ নেওয়া দুই ব্যক্তি আহত হন।