দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে আবারও হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। রোববার সকালে কাসপিয়ান সাগর থেকে বোমারু যুদ্ধবিমান টিইউ-৯৫ দিয়ে শহরটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। এতে কিয়েভের দুটি পূর্বাঞ্চলের জেলা শহরটি বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে। কিয়েভের মেয়র ও ইউক্রেনের বিমানবাহিনী হামলার এ তথ্য জানিয়েছে। খবর রয়টার্সের। 

সেরিহ লেশচেঙ্কো বলেন, কিয়েভের রেলওয়ে অবকাঠামো লক্ষ্য করে ওই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় রুশ বাহিনী।

কিয়েভের মেয়র ভিতালি ক্লিৎচকো বলেছেন, হামলায় তাৎক্ষণিকভাবে নিহত হওয়ার খবর জানা যায়নি। তবে একজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

হামলার বিষয়ে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইগর কোনাশেনকভ বলেছেন, কিয়েভের উপকণ্ঠে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের নিখুঁত আঘাতে টি-৭২ ট্যাংক এবং হ্যাঙ্গারে থাকা অন্যান্য সাঁজোয়া যান ধ্বংস করা হয়েছে। পূর্ব ইউরোপের দেশগুলো এগুলো সরবরাহ করেছিল।

এদিকে কিয়েভের কেন্দ্রস্থল থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে ব্রোভারি শহরের মেয়র বাসিন্দাদের বাড়ির বাইরে না যেতে অনুরোধ করেছেন। কারণ, বিস্ফোরণের ফলে সৃষ্ট কালো ধোঁয়া থেকে উৎকট গন্ধ তৈরি হয়েছে, যা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতির কারণ হতে পারে।

ইউক্রেনে রুশ হামলা শুরুর ১০০তম দিন ছিল গত শুক্রবার। এদিন মস্কো জানায়, ইউক্রেনে চূড়ান্ত লক্ষ্য অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত আক্রমণ চলবে। কিয়েভ বলেছে, যুদ্ধ শুরুর পর তাদের ভূখণ্ডের ২০ শতাংশ দখলে নিয়েছে রাশিয়া। অন্যদিকে ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেন, ইউক্রেনের বেশ কিছু অঞ্চলের স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে।