ভারতে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে অবমাননার প্রতিবাদে একটি বিক্ষোভে অংশ নেওয়া প্রবাসীদের গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছে কুয়েত। এরপর তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে। গত শুক্রবার কুয়েতের ফাহাহিল এলাকায় জুমার নামাজের পর ওই বিক্ষোভ হয়।

একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে কুয়েতভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আরব টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

কুয়েতের আইন অনুযায়ী, প্রবাসীরা কোনো ধরনের বিক্ষোভে অংশ নিতে পারেন না। সে হিসেবে শুক্রবারের বিক্ষোভে অংশ নেওয়া প্রবাসীরা আইন লঙ্ঘন করেছেন।

কুয়েতি সংবাদমাধ্যম আল রাইয়ের খবরে বলা হয়েছে, ইতিমধ্যে বিক্ষোভকারী প্রবাসীদের গ্রেপ্তারের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। গ্রেপ্তারের পর তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থাও করা হচ্ছে। এমনকি ওই প্রবাসীরা আর কখনো কুয়েতে ফিরতে পারবেন না।

এই বিক্ষোভকারীদের মধ্যে প্রবাসী বাংলাদেশি কেউ আছেন কি না, সে বিষয়ে জানা যায়নি।

সম্প্রতি মহানবী (সা.)-কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মাসহ শীর্ষস্থানীয় দুই নেতা অবমাননাকর মন্তব্য করেন। এ নিয়ে ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ হচ্ছে।

পশ্চিম এশিয়াসহ ইসলামি বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে। মহানবী (সা.)-কে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্যের পর কয়েকটি দেশ ভারতের রাষ্ট্রদূতকে তলবও করেছে।

পরে অবমাননাকর বক্তব্যের জন্য দুই নেতা নূপুর শর্মা ও নবীন জিন্দালের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছে বিজেপি। নবীন জিন্দলকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আর নূপুর শর্মাকে সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন।