স্যামুয়েল ইতো, ক্যামেরুন এই কিংবদন্তি ২০০৪ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত দাপিয়ে বেড়িয়েছেন ন্যু-ক্যাম্পের মাঠ। সেসময় বার্সেলোনার আক্রমণভাগের অন্যতম ভরসা ছিলেন তিনি। সেসময় ৩.৮ মিলিয়ন ইউরো কর ফাঁকি দিয়েছেন ক্যামেরুন তারকা। ফাঁকির অভিযোগ সম্প্রতি স্বীকারও করে নিয়েছেন। শাস্তি হিসেবে স্পেনের একটি আদালত তাকে ২২ মাসের কারাদণ্ড দিলেন। অবশ্য স্থগিত দণ্ড হওয়ায় এখন জেল খাটতে হচ্ছে না ৪৮ বছর বয়সী ইতোকে।

এক বিবৃতিতে নিজের অপরাধ স্বীকার করে নিলেও এই ঘটনার পুরো দায় তিনি দিয়েছেন এজেন্ট মেসালেসের ওপর, 'আমি সব স্বীকার করে নিচ্ছি। যা বকেয়া ছিল, পরিশোধ করতে চাই। তবে এটা জেনে রাখুন আমি তখন কেবল একটি শিশু ছিলাম। তখন সবসময় আমার প্রাক্তন এজেন্ট হোসে মারিয়া মেসালেস, যাকে বাবার মতো মনে করতাম, তার কথা অনুযায়ী চলতাম।'

স্পেনে বিদেশি ফুটবলারদের কর ফাঁকি দেয়া এটাই প্রথম নয়। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, লিওনেল মেসি, নেইমার থেকে শুরু করে রিয়ালের সাবেক কোচ হোসে মরিনহোর বিরুদ্ধেও কর ফাঁকির অভিযোগ উঠেছিল।

বার্সেলোনার জার্সিতে ১৪৪ ম্যাচে ১০৮ গোল করেন স্যামুয়েল ইতো। তিন লা লিগা ও দুই চ্যাম্পিয়নস লীগসহ বেশ কিছু শিরোপা জেতেন তিনি। ২০০৯ সালে বার্সেলোনা ছাড়ার পর ইন্টার মিলানে যোগ দেন ইতো। এরপর ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে চেলসি, এভারটনে খেলেছেন তিনি। ২০১৯ সালে কাতার এসসির হয়ে অবসরে যান ইতো।

আন্তর্জাতিক ফুটবলে ক্যামেরুন কিংবদন্তির গোল সংখ্যা ১৮৮ ম্যাচে ৫৬টি।