সাংবাদিক জামাল খাসোগির হত্যার পর ভেঙে যাওয়া সম্পর্ককে 'পুরোপুরি স্বাভাবিক' করতে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের সঙ্গে আলোচনার জন্য দেশটিতে গেছেন সৌদি যুবরাজ সালমান। গতকাল বুধবার কয়েক বছরের মধ্যে প্রথম তুরস্ক সফরে যান তিনি। সফরটি উপসাগরীয় অঞ্চলের বাইরে যুবরাজ সালমানের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার চেষ্টার একটি ধাপ হিসেবে চিহ্নিত করা হচ্ছে। এরই মধ্যে এরদোয়ান সৌদির কাছে আর্থিক সহায়তা চেয়েছেন, যা কঠিন নির্বাচনের আগে তুরস্কের বিপর্যস্ত অর্থনীতিকে দাঁড়াতে সহায়তা করতে পারে। খবর রয়টার্সের।
ইস্তাম্বুলে ২০১৮ সালে খাসোগির হত্যার ঘটনায় তুরস্কে বিচার প্রক্রিয়া বাদ দেওয়াসহ আঞ্চলিক শক্তিগুলোর মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে গত এপ্রিলে এরদোয়ান সৌদি আরবে যুবরাজ সালমানের সঙ্গে একের পর এক আলোচনা করেন। গত সপ্তাহে এরদোয়ান জানান, তিনি এবং রিয়াদের ডি ফ্যাক্টো নেতা (যুবরাজ সালমান) আঙ্কারায় আলোচনার সময় সম্পর্ক 'কতটা উচ্চতর স্তরে' নিয়ে যেতে পারেন, তা নিয়ে কথা বলবেন।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক জ্যেষ্ঠ তুর্কি কর্মকর্তা বলেন, এ সফরে 'সম্পর্ক পুরোপুরি স্বাভাবিককরণ হবে এবং প্রাক্‌-সংকট সময়ে পুনরায়' নিয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।