‘যাব পেয়ার কিসিসে হোতা হ্যায়’, ‘দিল দেকে দেখা’, ‘তিসরি মাঞ্জিল’, ‘লাভ ইন টোকিও’, ‘অ্যায় দিন বাহার কে’ এবং ‘কাটি পাতাং’ এইসব বিখ্যাত সব ছবির নায়িকা আশা পারেখ।  এখন বয়স তার ৭৯ বছর । তবে বয়স যখন তার বেড়ে যায়। নায়িকা না হয়ে মায়ের চরিত্রে অভিনয়ও শুরু করেছিলেন। কিন্তু নানা কারণে সেটা আর নিয়মিত করেননি। পুরোপুরি ছাড়েন অভিনয়। এক প্রকার অভিমান থেকেই অভিনয় ছাড়েন তিনি। 

মুম্বাই সংবাদসংস্থাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ‘তিসরি মঞ্জিল’এর নায়িকা জানান, নায়িকা চরিত্র থেকে সরে আসার পর অভিনেত্রীর কাছে নায়কের মায়ের চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব আসতে থাকে। অনিচ্ছা সত্ত্বেও অভিনয়কে ভালবেসেই আশা রাজি হন ওই চরিত্রে অভিনয় করতে। কিন্তু শ্যুটিং ফ্লোরের এক দিনের ঘটনা বাধ্য করেছিল তাকে অভিনয় জগৎ থেকে সরে আসতে। 

অভিনেত্রী জানান, শ্যুটিংয়ে কল টাইম ছিল সকাল সাড়ে ন’টায়। ওই ছবির নায়ক এসেছিলেন সন্ধ্যাবেলা। ওই নায়কের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছিল ৬০-এর দশকের সাড়া জাগানো অভিনেত্রীকে। এই অপমান সহ্য করতে পারেননি ‘কাটি পতঙ্গ’-এর নায়িকা। সেই দিনই বলিউডকে ‘বাই বাই’ বলেছিলেন। মাঝখানে অমিতাভের সঙ্গে ‘কালিয়া’ ছবিতে তিনি অভিনয় করলেও তার পর এক বুক অভিমান নিয়েই সরে আসেন বলিউড থেকে। 

মুম্বাই সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আশা নিজে অভিনয় জীবনে আবার ফিরতে না পারার আক্ষেপের পাশাপাশি অমিতাভ বচ্চনের দ্বিতীয় ইনিংসের সাফল্যের কথা উল্লেখ করে বলেছেন, ‘‘অমিতাভ ভাগ্যবান, উনি আবার কাজ করার সুযোগ পেয়েছিলেন, আমি পাইনি।’’